ঢাকা, সোমবার, এপ্রিল ২৩, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

রাষ্ট্রপতি : রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মঙ্গলবার দ্বিতীয় মেয়াদে রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথগ্রহণ করবেন * বাংলাদেশ স্বাস্থ্য ও পুষ্টিখাত উন্নয়নে বিশ্বে রোল মডেল : রাষ্ট্রপতি * নিষ্ঠার সঙ্গে নিজ নিজ দায়িত্ব পালনে বিজেএসসির প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান   |    জাতীয় সংবাদ : তারেক রহমানকে লন্ডন থেকে ফিরিয়ে আনতে আলোচনা চলছে : আইনমন্ত্রী * ভারতে গেলেন আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল * পাহাড়ের ঢালে অবৈধ বসবাসকারীদের কঠোরভাবে প্রতিরোধের আহবান মায়ার   |   প্রধানমন্ত্রী : প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল দেশে ফিরছেন * পুষ্টিক্ষেত্রে কাঙ্খিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সমন্বিত কার্যক্রমের বিকল্প নেই : শেখ হাসিনা * বিএনপি-জামায়াতের অপপ্রচারের উপযুক্ত জবাব দিন : প্রধানমন্ত্রী * প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠির উত্তর পেয়ে ছোট্ট সেঁজুতি অভিভূত   |   খেলাধুলার সংবাদ : দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে পাঁচটি কোপা ফাইনালে গোল করলেন মেসি * সেভিয়াকে বিধ্বস্ত করে ৩০তম কোপা ডেল রে শিরোপা জিতলো বার্সেলোনা   |    জাতীয় সংবাদ : সরকারের কার্যকরী পদক্ষেপের ফলেই বাংলাদেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ : শিক্ষামন্ত্রী * পদ্মা সেতুর ওপর রেল সংযোগ প্রকল্পের ঋণ চুক্তি আগামী ২৮ এপ্রিল সই হবে : রেলমন্ত্রী * প্রশিক্ষিত মানবসম্পদই দেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ দিকে নিয়ে যেতে পারে : নুরুল ইসলাম বিএসসি   |   আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে   |    অর্থনীতি : ভোলায় বোরোর বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা   |    বিভাগীয় সংবাদ : নড়াইলে উচ্ছে চাষে ঝুকছেন কৃষকরা   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : আফগানিস্তানে সংঘর্ষে ১১ জন নিহত * চীনের দক্ষিণাঞ্চলে নৌকাডুবিতে ১৭ জনের মৃত্যু * সিরিয়ার রাকায় গণকবরে ২শটি লাশ পাওয়া গেছে * সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে দাগেস্তানে ৯ জন নিহত   |   

পাকবাহিনীর আত্মসমর্পণ : বিদেশী সাংবাদিকদের প্রত্যক্ষ বিবরণ

ঢাকা, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৫ (বাসস) : ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিকেলে ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে যখন হানাদার পাক বাহিনীর সদস্যরা আত্মসমর্পণ করছিল তখন পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় কমান্ডের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট জেনারেল এ এ কে নিয়াজী চোখে ছিল কান্না।
নিউইয়র্ক টাইমসের সাংবাদিক জেমস পি স্টেরবা এবং লন্ডনের দ্যা টাইমসের পিটার এ লাফলিন ঢাকা থেকে তাদের পাঠানো প্রতিবেদনে ওই সময়ের প্রত্যক্ষ বিবরণ তুলে ধরেছেন।
১৯৭১ সালের ১৬ এবং ১৭ ডিসেম্বর তারিখে প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনগুলোতে প্রত্যক্ষদর্শীর বিবরণে পাকিস্তান বাহিনীর আত্মসমর্পণের চিত্র ফুটে উঠেছে।
সাংবাদিক জেমস পি স্টেরবা তার প্রতিবেদনে লিখেছেন, জেনারেল অরোরা আত্মসমর্পণের দলিল সামনে তুলে ধরেন এবং জেনারেল নিয়াজী উঠে দাঁড়ান, সতর্কতার সাথে পড়েন, বসে পড়েন এবং স্বাক্ষর করেন।
এরপর অশ্রুসজল চোখে পাকিস্তানী জেনারেল আবার উঠে দাঁড়িয়ে ধীরে ধীরে তার পিস্তল বের করেন এবং জেনারেল অরোরার হাতে সেটা তুলে দেন।
অন্যদিকে জেনারেল নিয়াজীর পাশাপাশি হাঁটছিলেন ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় বাহিনীর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট জেনারেল জগজিৎ সিং অরোরা। তিনি ছিলেন প্রাণবন্ত ও হাসোজ্বল। পরাজিত পাক বাহিনীর জেনারেল নিয়াজী ছিলেন ভয়ঙ্কর রকম বিপর্যস্থ। ভারতীয় জেনারেলের সহকারীরা একটি কালো চামড়ার ব্রিফকেস থেকে একটি বাদামি রংয়ের ম্যানিলা খাম বের করেন।
প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, যখন ঘাসের উপর কাঠের টেবিলে আত্মসমর্পণ স্বাক্ষরিত হয়, তখন এক কোম্পানী ভারতীয় সৈন্য ও এক প্লাটুন পাকিস্তানী সৈন্য অস্ত্রসহ দাঁড়ায় এবং এ সময় ভারতীয় ট্যাঙ্কগুলো নগরীতে প্রবেশ করে।
আত্মসমর্পণের সময়কার পরিস্থিতির বর্ণনা দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, এ সময় পুরনো বেসামরিক সরকারের জন্য পশ্চিম পাকিস্তানের সামরিক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল রাও ফরমান আলী নিরবে একাকী দাঁড়িয়ে ছিলেন। আর তরুন বাঙ্গালীরা তার দিকে তাকিয়ে কসাই বলে চিৎকার করছিল।
প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, আত্মসমর্পণের ঠিক পর থেকেই পুরোটা সময় এক তরুণ বাঙ্গালী পাকিস্তানী জেনারেল (নিয়াজী) মাথার উপর বাংলাদেশের পতাকা ধরেছিল।
জেমস পি স্টেরবা তার প্রতিবেদনে হানাদার পাক বাহিনীর প্রতি ওই সময় ক্ষুব্ধ বাঙ্গালীদের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে লিখেছেন, এক বাঙ্গালী পাকিস্তানী কর্মকর্তাদের খোঁজ করছিল আর চিৎকার করে বলছিল, খুনি জারজগুলো কোথায় ?
সাংবাদিক পিটার ওলাফলিন তার প্রতিবেদনে লিখেছেন, বাঙ্গালীরা জয়বাংলা শ্লোগান দিয়ে উল্লাস প্রকাশ করছিল।
আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানের প্রত্যক্ষদর্শী ভারতীয় সেনাবাহিনীর লে. কর্নেল বি পি হাইকের উদ্ধৃতি দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, আত্মসমর্পণের পর জেনারেল অরোরা তখন জেনারেল নিয়াজির পদবীর চিহ্ন কাঁধ থেকে খুলে নেন।
প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, এ সময় পাকিস্তানী বাহিনী তাদের অস্ত্র মাটিতে রেখে উঠে দাঁড়ায়, জেনারেল অরোরাকে কাঁধে তুলে ধরা হয় এবং জনগণ ভারতীয় সেনা কর্মকর্তাদের দিকে ফুল ছুঁড়ে দেয়।