ঢাকা, শনিবার, জানুয়ারী ২০, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

প্রধানমন্ত্রী : আসাদের আত্মত্যাগে স্বাধীনতা আন্দোলন আরো গতিশীল হয় : প্রধানমন্ত্রী * মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের আকাশে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র : প্রধানমন্ত্রী * সাস্থ্যবান প্রজন্ম গড়তে প্রাণিসম্পদ খাতের গুরুত্ব অপরিসীম : শেখ হাসিনা   |   রাষ্ট্রপতি : শহীদ আসাদের সর্বোচ্চ অবদান তরুণ প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা যোগাবে : রাষ্ট্রপতি * প্রাণিস্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতের মাধ্যমে ২০৩০ সালে এসডিজি বাস্তবায়ন সম্ভব হবে : রাষ্ট্রপতি * মধুসূদন দত্ত বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী ছিলেন : রাষ্ট্রপতি   |    জাতীয় সংবাদ : শহীদ আসাদ দিবস কাল * বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ধাপেও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে : আসাদুজ্জামান খাঁন * এমপিও ভূক্তির জন্য শিক্ষকদের আন্দোলনের প্রয়োজন নেই : আইনমন্ত্রী   |    বিভাগীয় সংবাদ : যশোরের সাগরদাঁড়িতে আগামীকাল শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী মধুমেলা * মাগুরায় ১০ কিলোমিটার মহাসড়কে চার লেনের কাজ এগিয়ে চলছে   |   শিক্ষা : ঢাবি সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে ঢাকা কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ আগামীকাল   |    জাতীয় সংবাদ : বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্ব শুরু, লাখো মুসুল্লির জুমার নামাজ আদায় * নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে বিএনপি জনপ্রিয়তা যাচাই করতে পারে : হানিফ * তারুণ প্রজন্মকেই আধুনিক সমাজ বিনির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে : শিরীন শারমিন * আইভীকে দেখতে হাসপাতালে ওবায়দুল কাদের   |   বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি : ড্রোন প্রযুক্তি ব্যবহারে উড়োজাহাজ তৈরি করেছে গোপালগঞ্জের কিশোর আরমানুল ইসলাম   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : দ.কোরিয়ায় অগ্রবর্তী বাদকদল পাঠাবে উ.কোরিয়া * আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনীর অভিযানে ৮ জঙ্গি নিহত * ইরানের পারমাণু চুক্তির শর্ত কঠিন করাই মার্কিন আইনপ্রণেতাদের লক্ষ্য   |   আবহাওয়া : আবহাওয়া শুষ্ক এবং রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে   |   খেলাধুলার সংবাদ : রেকর্ড ব্যবধানে শ্রীলংকাকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ *তামিমের ১১, সাকিবের ১০ ও সাব্বিরের ১ হাজার রান *৩শ ম্যাচের মাইলফলক স্পর্শ করলেন মুশফিকুর রহিম   |   

নিয়াজীর আত্মসমর্পণের পর ৬ দিন ঢাকা উত্তর মুক্তিবাহিনী রাজধানীর আইন শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করে

॥ সৈয়দ সোহরাব ॥
ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৫ (বাসস): জেনারেল নিয়াজীর আত্মসমর্পণের পর রাজধানী ঢাকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার দায়িত্ব পালন করেছিল ঢাকা উত্তর মুক্তিবাহিনী। ওই সময় এ বাহিনী ৬ দিন রাজধানীর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সামাল দেন।
স্বাধীনতার ৪৪ বছর পর নিয়াজীর আত্মসমর্পণ ও বাংলাদেশের বিজয়ের মুহূর্তের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে ঢাকা উত্তর মুক্তিবাহিনীর কমান্ডার ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু এ কথা বলেন।
তিনি বাসসকে জানান, ঢাকার সেক্টর কমান্ডার জেনারেল শফিউল্লাহ তার বাহিনীকে এ দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেন। তার বাহিনী ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাত থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত মহানগরীর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষায় দায়িত্ব পালন করে।
বাচ্চু বলেন, ওই সময় তারা ঢাকার ১০টি স্থানে ক্যাম্প স্থাপন করেছিলেন। সেই সঙ্গে মাইকিংয়ের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন হওয়ার খবর নগরবাসীকে জানিয়ে নিজ হাতে আইন তুলে না নেয়ার অনুরোধও করেন।
তিনি বলেন, মাইকিংয়ে তারা নগরবাসীর প্রতি আহবান জানান কোন অপরাধী ধরা পড়লে যেন সেই অপরাধীকে তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়।
এ মুক্তিযোদ্ধা আরো বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাক হানাদার বাহিনীর আত্মসমর্পনের কথা শুনে তারা এতটাই খুশি হয়েছিলেন যে, তখন তার বাহিনীর কেউ কেউ আকাশে গুলি ছুড়েছিলেন।
তিনি বলেন, ওই সময় তার বয়স মাত্র ২১ বছর। ওই বয়সে তারুণ্যের যে উচ্ছ্বাস থাকে, স্বাধীনতার কথা শুনে তার সবটাই নিজের অজান্তে একের পর এক বের হয়ে এসেছিল।
মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয় দিবসের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তিনি আরো বলেন, ১৫ ডিসেম্বর বিকালে সাভার রেডিও স্টেশন থেকে রেডিও পাকিস্তানের খবরে শুনেছিলেন ১৬ ডিসেম্বর (১৯৭১) পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পন করবে। তখন সাভার রেডিও স্টেশন তাদের দখলে ছিল বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
বাচ্চু বলেন, ১৩ ও ১৪ ডিসেম্বর তার বাহিনী পাক আর্মি ও শান্তি কমিটির বাহিনীর সঙ্গে তুমুল যুদ্ধের মাধ্যমে তাদের পরাজিত করে কালিয়াকৈর, ধামরাই ও সাভার মুক্ত করেন। মিরপুর-গাবতলী ব্রিজ পর্যন্ত তখন মুক্ত এলাকা হিসাবে তাদের নিয়ন্ত্রণে ছিল বলেও তিনি জানান। তবে তারা ঢাকায় ঢুকতে পারেননি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ওই যুদ্ধে তার বন্ধু মানিক ও টিটু শহীদ হনেছেন।
মুক্তিবাহিনী কমান্ডার বাচ্চু বলেন, ১৫ ডিসেম্বর রেডিও পাকিস্তানে আত্মসমর্পনের কথা শোনার পর ১৬ ডিসেম্বর সকালে জেনারেল নাগরার মাধ্যমে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তৎক্ষণাৎ মুক্তিযোদ্ধা জামালের নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করে তাদের ঢাকায় ঢোকার অর্ডার দেয়। পরে তারাও ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন বলে তিনি জানান।
বাচ্চু বলেন, ঢাকায় ঢুকতে কোন আক্রমণের সম্মুখিন যেন হতে না হয়, সে জন্য তারা খুব ধীর গতিতে ঢোকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এ কারণে তারা গাড়ির হেডলাইট বন্ধ করে ঢাকার দিকে এগুতে থাকেন।
তিনি বলেন, ধীর গতির কারণে তাদের ঢাকায় ঢুকতে সন্ধ্যা পাড় হয়ে যায়। আর সন্ধ্যার বেশ পরে তার বাহিনী সায়েন্স ল্যাবরেটরী এসে পৌঁছায়। এর আগে পর্যন্ত তারা গাড়ির হেডলাইট জ্বালাননি।
ধীর গতির কারণেই তারা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) আত্মসমর্পনের সময়টিতে উপস্থিত হতে পারেননি উল্লেখ করে ঢাকা উত্তরের এ কমান্ডার বলেন, তবে রাতে সেখানে পৌঁছে জেনারেল শফিউল্লাহসহ অনেককেই তারা দেখেছেন। আর ওই সময়ই সেক্টর কমান্ডার শফিউল্লাহ তার বাহিনীকে ঢাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার দায়িত্ব দেন।