ঢাকা, মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৪, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে ৬ মে থেকে টিসিবির পণ্য বিক্রি শুরু * ২০১৮ সালের হজযাত্রীদের প্রাক-নিবন্ধনের চূড়ান্ত ক্রম প্রকাশ * যুদ্ধাপরাধ মামলায় এনএসআইয়ের সাবেক ডিজি গ্রেফতার   |   প্রধানমন্ত্রী : চট্টগ্রামবন্দর দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে : প্রধানমন্ত্রী * বেলাল চৌধুরীর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক * গ্লোবাল উইমেনস লিডারশিপ এওয়ার্ড পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী   |   রাষ্ট্রপতি : দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নিলেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ * ভূ-রাজনৈতিক বিবেচনায় চট্টগ্রাম বন্দরের গুরুত্ব আজ বিশ্বব্যাপী স্বীকৃতি : রাষ্ট্রপতি * কবি বেলাল চৌধুরীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক   |    জাতীয় সংবাদ : আগামী জাতীয় নির্বাচনে বহিঃবিশ্বের হস্তক্ষেপ আশা করে না আওয়ামী লীগ : ওবায়দুল কাদের * রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ২৬১.৮৮ কোটি টাকা দেয়া হয়েছে * ১৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে এএসইউ প্ল্যান্টের উদ্বাধন    |   খেলাধুলার সংবাদ : চেলসিকে হারিয়ে ইউয়েফা ইয়ুথ লীগের শিরোপা জিতলো বার্সেলোনা * তিন বছরের জন্য রোমার জার্সির পৃষ্ঠপোষক হলো কাতার এয়ারওয়েজ * আরেকটি ট্রেবল জয়ের চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হেইঙ্কেস   |    জাতীয় সংবাদ : বাংলাদেশের সাবলিল উন্নয়নে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতার আহ্বান অর্থমন্ত্রীর * বিশিষ্ট কবি বেলাল চৌধুরী আর নেই * বাংলাদেশের পর্যটন খাতে বিনিয়োগে বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী আহ্বান   |   আবহাওয়া : সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুস্ক থাকতে পারে    |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : মেক্সিকোতে নিখোঁজ ৩ ছাত্র বেঁচে নেই * চীনে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ১৮ জনের মৃত্যু *কাবুলে সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের * টরেন্টোতে পথচারীদের ওপর গাড়ি তুলে দেয়ার ঘটনায় নিহত ১০   |   

নিয়াজীর আত্মসমর্পণের পর ৬ দিন ঢাকা উত্তর মুক্তিবাহিনী রাজধানীর আইন শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করে

॥ সৈয়দ সোহরাব ॥
ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৫ (বাসস): জেনারেল নিয়াজীর আত্মসমর্পণের পর রাজধানী ঢাকার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার দায়িত্ব পালন করেছিল ঢাকা উত্তর মুক্তিবাহিনী। ওই সময় এ বাহিনী ৬ দিন রাজধানীর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সামাল দেন।
স্বাধীনতার ৪৪ বছর পর নিয়াজীর আত্মসমর্পণ ও বাংলাদেশের বিজয়ের মুহূর্তের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে ঢাকা উত্তর মুক্তিবাহিনীর কমান্ডার ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু এ কথা বলেন।
তিনি বাসসকে জানান, ঢাকার সেক্টর কমান্ডার জেনারেল শফিউল্লাহ তার বাহিনীকে এ দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেন। তার বাহিনী ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাত থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত মহানগরীর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষায় দায়িত্ব পালন করে।
বাচ্চু বলেন, ওই সময় তারা ঢাকার ১০টি স্থানে ক্যাম্প স্থাপন করেছিলেন। সেই সঙ্গে মাইকিংয়ের মাধ্যমে দেশ স্বাধীন হওয়ার খবর নগরবাসীকে জানিয়ে নিজ হাতে আইন তুলে না নেয়ার অনুরোধও করেন।
তিনি বলেন, মাইকিংয়ে তারা নগরবাসীর প্রতি আহবান জানান কোন অপরাধী ধরা পড়লে যেন সেই অপরাধীকে তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়।
এ মুক্তিযোদ্ধা আরো বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাক হানাদার বাহিনীর আত্মসমর্পনের কথা শুনে তারা এতটাই খুশি হয়েছিলেন যে, তখন তার বাহিনীর কেউ কেউ আকাশে গুলি ছুড়েছিলেন।
তিনি বলেন, ওই সময় তার বয়স মাত্র ২১ বছর। ওই বয়সে তারুণ্যের যে উচ্ছ্বাস থাকে, স্বাধীনতার কথা শুনে তার সবটাই নিজের অজান্তে একের পর এক বের হয়ে এসেছিল।
মহান মুক্তিযুদ্ধের বিজয় দিবসের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে তিনি আরো বলেন, ১৫ ডিসেম্বর বিকালে সাভার রেডিও স্টেশন থেকে রেডিও পাকিস্তানের খবরে শুনেছিলেন ১৬ ডিসেম্বর (১৯৭১) পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পন করবে। তখন সাভার রেডিও স্টেশন তাদের দখলে ছিল বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
বাচ্চু বলেন, ১৩ ও ১৪ ডিসেম্বর তার বাহিনী পাক আর্মি ও শান্তি কমিটির বাহিনীর সঙ্গে তুমুল যুদ্ধের মাধ্যমে তাদের পরাজিত করে কালিয়াকৈর, ধামরাই ও সাভার মুক্ত করেন। মিরপুর-গাবতলী ব্রিজ পর্যন্ত তখন মুক্ত এলাকা হিসাবে তাদের নিয়ন্ত্রণে ছিল বলেও তিনি জানান। তবে তারা ঢাকায় ঢুকতে পারেননি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ওই যুদ্ধে তার বন্ধু মানিক ও টিটু শহীদ হনেছেন।
মুক্তিবাহিনী কমান্ডার বাচ্চু বলেন, ১৫ ডিসেম্বর রেডিও পাকিস্তানে আত্মসমর্পনের কথা শোনার পর ১৬ ডিসেম্বর সকালে জেনারেল নাগরার মাধ্যমে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তৎক্ষণাৎ মুক্তিযোদ্ধা জামালের নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করে তাদের ঢাকায় ঢোকার অর্ডার দেয়। পরে তারাও ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন বলে তিনি জানান।
বাচ্চু বলেন, ঢাকায় ঢুকতে কোন আক্রমণের সম্মুখিন যেন হতে না হয়, সে জন্য তারা খুব ধীর গতিতে ঢোকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। এ কারণে তারা গাড়ির হেডলাইট বন্ধ করে ঢাকার দিকে এগুতে থাকেন।
তিনি বলেন, ধীর গতির কারণে তাদের ঢাকায় ঢুকতে সন্ধ্যা পাড় হয়ে যায়। আর সন্ধ্যার বেশ পরে তার বাহিনী সায়েন্স ল্যাবরেটরী এসে পৌঁছায়। এর আগে পর্যন্ত তারা গাড়ির হেডলাইট জ্বালাননি।
ধীর গতির কারণেই তারা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) আত্মসমর্পনের সময়টিতে উপস্থিত হতে পারেননি উল্লেখ করে ঢাকা উত্তরের এ কমান্ডার বলেন, তবে রাতে সেখানে পৌঁছে জেনারেল শফিউল্লাহসহ অনেককেই তারা দেখেছেন। আর ওই সময়ই সেক্টর কমান্ডার শফিউল্লাহ তার বাহিনীকে ঢাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষার দায়িত্ব দেন।