ঢাকা, শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

প্রধানমন্ত্রী : রাখাইন প্রদেশে সহিংসতা বন্ধ করতে কমনওয়েলথের আহ্বান   |   রাষ্ট্রপতি : কিশোরগঞ্জের ব্যবসায়ী আবদুল করিমের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতির শোক   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : কিউবায় কাস্ত্রো পরিবারের বাইরে নেতৃত্ব : দিয়াজ-কানেলের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর   |   বিনোদন ও শিল্পকলা : সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে পর্যটকদের নতুন আকর্ষণ এ্যাডভেঞ্চার ট্রি   |    জাতীয় সংবাদ : উন্নয়নে নারীর ভূমিকা অব্যাহত রাখতে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি রুখতে হবে : ইনু * আইডব্লিউএম ও সিসিকের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর * নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে : শিল্পমন্ত্রী * কুড়িগ্রামের সোনারহাট স্থলবন্দর চালু হবে : নৌ পরিবহন মন্ত্রী   |   খেলাধুলার সংবাদ : আমি এখনো বুড়ো হয়ে যাইনি : গেইল * গেইলের সেঞ্চুরিতে সাকিবের হায়দারাবাদকে প্রথম হারের স্বাদ দিলো পাঞ্জাব * টাইম-এর একশ প্রভাবশালীর তালিকায় কোহলি   |    বিভাগীয় সংবাদ : গাজীপুরে মিরের বাজারে বাস-ট্রাক মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত এক : আহত ৩ * বরগুনায় ধারাবাহিক ভাবে সূর্যমুখীর চাষ চলছে * জনস্বাস্থ্য রক্ষায় নিরাপদ পোল্ট্রি ফার্ম ব্যবস্থার ওপর গুরুত্বারোপ   |   প্রধানমন্ত্রী : কমনওয়েলথ উচ্চ পর্যায়ের গ্রুপে আরো প্রতিনিধি অন্তর্ভুক্ত করার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর * টাইম ম্যাগাজিনে বিশ্বের ১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় শেখ হাসিনা * রাণী এলিজাবেথের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বিনিময়   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামায় ৮৩ বছর বয়সী ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড কার্যকর * বিমান রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ায় কাঠমান্ডু বিমানবন্দর বন্ধ ঘোষণা * দেশে অস্থিরতার কারণে ব্রিটেন সফর সংক্ষিপ্ত করলেন দ.আফ্রিকার নেতা   |   

পূর্ব সীমান্তে হামলা অব্যাহত থাকায় ইয়াহিয়ার কণ্ঠস্বর নরম হয়

ঢাকা, ৪ ডিসেম্বর ২০১৫ (বাসস) : তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে পাকিস্তানী দখলদার বাহিনীর অব্যাহতভাবে মার খাওয়ার প্রেক্ষাপটে প্রেসিডেন্ট আগা মুহাম্মদ ইয়াহিয়া খান তার বাজখাই কণ্ঠস্বর হঠাৎই একজন দার্শনিকের মতো নরম করে ফেলেন।
১৯৭১ সালের নভেম্বরে আমেরিকান সাপ্তাহিক নিউজ ম্যাগাজিন নিউজ উইক-এ দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ওই পাকিস্তানী লৌহমানব আক্ষরিক অর্থেই ভারত যাতে বাংলাদেশের বিষয়ে সহযোগিতা বন্ধ করে সেই আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, একটি স্বাধীন দেশ হিসেবে বাংলাদেশের অভ্যুদ্বয় হলে তাদের ঐতিহাসিক শত্রু ভারতের ক্ষতিই হবে সবচেয়ে বেশী।
ইয়াহিয়া নিউজ উইকের সিনিয়র সম্পাদক অর্নাউদ দ্য বর্চগ্রেভ কে বলেন, ভারত নিজেই নিজেদের এই বড় ক্ষতি ঢেকে আনবে। পূর্ব বাংলা ও আসাম শিগগিরই এক হবে এবং সেটাই হবে ইন্ডিয়ান ইউনিয়নের নিজের ভাঙ্গনের সূচনা। আমি মহান আল্লাহর কাছে প্রত্যাশা করবো- এই মহিলা (তৎকালীন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী) বিষয়টি বুঝতে পারবেন।
বাংলাদেশের বীর সন্তানদের কাছে ইতোমধ্যে ভালভাবেই মার খেয়ে ইয়াহিয়া বুঝতে পেরেছিলেন যে ভারতীয় পুরো বাহিনীর আক্রমণের মুখে তার বাহিনীর বেশি সময় টিকে থাকা সম্ভব হবে না।
ইয়াহিয়া বলেন, চীন পাকিস্তানের ওপর আক্রমণ সহ্য করবে না। আমরা আমাদের প্রয়োজনীয় সকল অস্ত্র ও গোলাবারুদ পেয়ে যাব, বাস্তব হামলার স্বল্প সময়ের মধ্যেই। আমরা কিছু সামগ্রী পাব বিনামূল্যে এবং অন্য কিছু জিনিস কিনতে হবে।
ইয়াহিয়া হতাশার সুরে বলেন, কিভাবে আমাদের সেনাবাহিনী আমাদের চেয়ে ৫ গুন বড় আকারের একটি (ভারতীয়) বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধ করবে এবং বিজয় লাভ করবে। তারা যদি দিনে ৩ হাজার সেল নিক্ষেপ করতে পারে, এর অর্থ হলো তাদের হাতে প্রচুর গোলাবারুদ রয়েছে- অতএব তাদের সঙ্গে লড়তে যাওয়াটা হবে আমার জন্য এটা সামরিক খ্যাপামি। এটা সাধ্যের বাইরে সেনাবাহিনীর এটা বিলাসিতা।