ঢাকা, শনিবার, জানুয়ারী ২০, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

প্রধানমন্ত্রী : আসাদের আত্মত্যাগে স্বাধীনতা আন্দোলন আরো গতিশীল হয় : প্রধানমন্ত্রী * মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের আকাশে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র : প্রধানমন্ত্রী * সাস্থ্যবান প্রজন্ম গড়তে প্রাণিসম্পদ খাতের গুরুত্ব অপরিসীম : শেখ হাসিনা   |   রাষ্ট্রপতি : শহীদ আসাদের সর্বোচ্চ অবদান তরুণ প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা যোগাবে : রাষ্ট্রপতি * প্রাণিস্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতের মাধ্যমে ২০৩০ সালে এসডিজি বাস্তবায়ন সম্ভব হবে : রাষ্ট্রপতি * মধুসূদন দত্ত বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী ছিলেন : রাষ্ট্রপতি   |    জাতীয় সংবাদ : শহীদ আসাদ দিবস কাল * বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ধাপেও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে : আসাদুজ্জামান খাঁন * এমপিও ভূক্তির জন্য শিক্ষকদের আন্দোলনের প্রয়োজন নেই : আইনমন্ত্রী   |    বিভাগীয় সংবাদ : যশোরের সাগরদাঁড়িতে আগামীকাল শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী মধুমেলা * মাগুরায় ১০ কিলোমিটার মহাসড়কে চার লেনের কাজ এগিয়ে চলছে   |   শিক্ষা : ঢাবি সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে ঢাকা কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ আগামীকাল   |    জাতীয় সংবাদ : বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্ব শুরু, লাখো মুসুল্লির জুমার নামাজ আদায় * নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে বিএনপি জনপ্রিয়তা যাচাই করতে পারে : হানিফ * তারুণ প্রজন্মকেই আধুনিক সমাজ বিনির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে : শিরীন শারমিন * আইভীকে দেখতে হাসপাতালে ওবায়দুল কাদের   |   বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি : ড্রোন প্রযুক্তি ব্যবহারে উড়োজাহাজ তৈরি করেছে গোপালগঞ্জের কিশোর আরমানুল ইসলাম   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : দ.কোরিয়ায় অগ্রবর্তী বাদকদল পাঠাবে উ.কোরিয়া * আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনীর অভিযানে ৮ জঙ্গি নিহত * ইরানের পারমাণু চুক্তির শর্ত কঠিন করাই মার্কিন আইনপ্রণেতাদের লক্ষ্য   |   আবহাওয়া : আবহাওয়া শুষ্ক এবং রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে   |   খেলাধুলার সংবাদ : রেকর্ড ব্যবধানে শ্রীলংকাকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ *তামিমের ১১, সাকিবের ১০ ও সাব্বিরের ১ হাজার রান *৩শ ম্যাচের মাইলফলক স্পর্শ করলেন মুশফিকুর রহিম   |   

জয়পুরহাট শত্রু মুক্ত দিবস কাল

জয়পুরহাট, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৪ (বাসস) : আগামীকাল ১৪ ডিসেম্বর জয়পুরহাট পাক হানাদার মুক্ত দিবস।
১৯৭১ সালের এই দিনে পাক হানাদারদের হটিয়ে জয় বাংলা শ্লোগান দিয়ে শত শত মুক্তিযোদ্ধা ১৪ ডিসেম্বরের ভোরের আকাশ রাঙ্গিয়ে ওঠার আগেই শীতের কুয়াশা ছিন্ন ভিন্ন করে ঝাঁকে ঝাঁকে ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে ও উল্লাসের মধ্য দিয়ে জয়পুরহাটের ডাক বাংলোতে প্রবেশ করে।
হানাদার পাকিস্তানি সৈন্য ও তার দোসররা তখন জীবন বাঁচাতে বগুড়া ও ঘোড়াঘাটের দিকে পালিয়ে যায়।
জয়পুরহাটের ডাক বাংলোতে আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালবাসি- জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে প্রথম স্বাধীনতার বিজয় কেতন সোনালী বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত পতাকা উত্তোলন করেন প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আসাদুজ্জামান (বাঘা বাবলু)। এই স্বাধীনতার জন্য মূল্য দিতে হয়েছে অনেক মা-বাবা, ভাই-বোনকে। স্বজনদের হারিয়ে অনেকেই এখনও শোকে পাথর হয়ে আছে।
৭১ সালের জয়পুরহাটের পাগলা দেওয়ানে ৯ মাসব্যাপী যুদ্ধকালে হানাদার বাহিনী জেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে ধরে নিয়ে এসে প্রায় ১০ হাজার মানুষকে বেয়নেট দিয়ে খুঁচিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে এই পাগলা দেওয়ানে। এখানে শুয়ে আছে কত মায়ের অজানা সন্তান। উত্তরাঞ্চলের সবচেয়ে বড় বধ্যভূমি এই পাগলা দেওয়ান। এখানে পাক হানাদার বাহিনীর একটি পরিত্যাক্ত বাংকার এখনও বিদ্যমান। এই নারকীয় হত্যাযজ্ঞ থেকে প্রাণে বেঁচে আসা অনেকেই এখনও সেই করুণ স্মৃতি বহন করে চলেছেন।
এছাড়াও কড়ই কাদিপুর গ্রামে ৩শ ৭১ জন মৃৎ শিল্পী (কুমার) কে গুলি করে হত্যা করে পাক হানাদার বাহিনী। এখানে একটি বধ্যভূমি রয়েছে।
বিজয়ের এই দিনকে স্মরণ করতে জয়পুরহাটে শহীদ ডাঃ আবুল কাসেম ময়দানে ৭১ ফুট উচ্চ শহীদ স্মৃতি বিজয়স্তম্ভ নির্মিত হয়েছে।
১৪ ডিসেম্বর হানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষ্যে জয়পুরহাটবাসী পাগলা দেওয়ান স্মৃতি সৌধে পুস্পমাল্য অর্পণ, বিজয় পতাকা উত্তোলন, শোভাযাত্রা ও শহীদ ডা. আবুল কাশেম ময়দানে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে।
মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডার আমজাদ হোসেন জানান, জয়পুরহাটের গণহত্যার নায়ক ও তৎকালিন শান্তি কমিটির চেয়ারম্যান যুদ্ধাপরাধি আব্দুল আলীমের (আমৃত্যু সাজা) বিচার হওয়ায় (বর্তমানে মৃত্য) এবারের বিজয় দিবস ভিন্ন আমেজে পালিত হবে ।

সম্পর্কিত সংবাদ