ঢাকা, বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

রাষ্ট্রপতি : বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে : রাষ্ট্রপতি   |    বিভাগীয় সংবাদ : দিনাজপুরে নাশকতার মামলায় ৪ জেএমবি সদস্যের জামিন আবেদন নামঞ্জুর   |   জাতীয় সংসদ : বঙ্গবন্ধু সেতুতে ডুয়েলগেজ রেললাইনসহ পৃথক রেল সেতু নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী * আগামী বাজেটে বেসরকারি বিদ্যালয়ের এমপিও অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে সরকার সিদ্ধান্ত নিবে : প্রধানমন্ত্রী *সকল জেলায় হাইটেক পার্ক স্থাপন করা হবে : প্রধানমন্ত্রী   |   জাতীয় সংসদ : সরকার প্রতিবন্ধী শিশুদের শিক্ষার প্রতি অত্যন্ত যত্নশীল : প্রধানমন্ত্রী * ২০০৯ সাল থেকে অদ্যাবধি রেলওয়ের বিভিন্ন পদে ১০ হাজার ৩৯১ জনকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে : রেলপথ মন্ত্রী * কিছু রাজনীতিবিদ নির্বাচন এলে বক্রপথে ক্ষমতায় যাবার স্বপ্ন দেখে : প্রধানমন্ত্রী   |   শিক্ষা : শর্ত পূরণ না করা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে : শিক্ষামন্ত্রী   |   বিনোদন ও শিল্পকলা : প্রাচ্যনাটের অ্যাকটিং স্কুলের নতুন নাটক নৈশভোজ মঞ্চস্থ হলো   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ট্রাম্পের স্বাস্থ্যগত জটিলতা নেই : চিকিৎসক   |   প্রধানমন্ত্রী : উন্নত দেশগুলোকে বাংলাদেশের পাশে দাঁড়ানোর আহবান প্রধানমন্ত্রীর   |   আবহাওয়া : দেশের কিছু স্থানে শৈত্যপ্রবাহ কমবে   |   খেলাধুলার সংবাদ : মিরপুর স্টেডিয়ামের শততম ওয়ানডে ম্যাচে শ্রীলংকাকে ২৯১ রানের টার্গেট দিলো জিম্বাবুয়ে *আমাদের পেস বোলাররাই সেরা : রুবেল   |    জাতীয় সংবাদ : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন বন্ধে সরকারের কোন হাত নেই : ওবায়দুল কাদের *ঢাকা উত্তর সিটির উপ-নির্বাচন স্থগিত * নবম ওয়েজ বোর্ডে সাংবাদিকদের স্বার্থ গুরুত্ব পাবে: তারানা হালিম * আপিল শুনানির কার্যতালিকায় যুদ্ধাপরাধী আজহার-কায়সার-সুবহানের মামলা   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : ফিলিস্তিনের জন্য জাতিসংঘ সংস্থা থেকে বরাদ্দকৃত অর্থ প্রত্যাহার যুক্তরাষ্ট্রের * মিয়ানমারে রাখাইন বৌদ্ধদের ওপর পুলিশের হামলা ॥ নিহত ৭ * পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্টের হাসপাতাল ত্যাগ * মেক্সিকোয় গণকবর থেকে ৩২টি লাশ উদ্ধার    |   

বদরগঞ্জের ভয়াবহ গণহত্যা মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের এক নির্মম সাক্ষ্য

রংপুর, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৪ (বাসস) : জেলার বদরগঞ্জ উপজেলায় ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল পাকিস্তানী দখলদার বাহিনী কর্তৃক দেড় হাজার নিরপরাধ বাঙ্গালীর ওপর পরিচালিত গণহত্যা মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের এক নির্মম সাক্ষ্য হয়ে আছে।
জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু বলেন, এই ভয়াবহ গণহত্যার প্রেক্ষিতে রংপুর অঞ্চলের শত শত মানুষ মুক্তি বাহিনীতে যোগদান শুরু করে এবং দেশে একটি পূর্ণাঙ্গ মুক্তিযুদ্ধের সূচনা হয়।
মেহেরপুরের বৈদ্যনাথ তলায় বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকারের শপথের মধ্যদিয়ে দেশ যখন মহান স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের এক গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়ে প্রবেশ করে ও দিনই ঘটে এ গণহত্যা।
তিনি বলেন, শত শত মুক্তিযোদ্ধা এবং স্থানীয় ও বিদেশী সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে বৈদ্যনাথ তলায় আমাদের জাতীয় পতাকা যখন উত্তোলন করা হয় ঠিক তখনই দখলদার বাহিনী ঝাড়য়ার বিন পদ্মপুকুর অঞ্চলে এই গণহত্যা চালায়।
কয়েকজন প্রবীণ লোক ও স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা জানান, দখলদার বাহিনী তাদের এ দেশীয় দোসর রাজাকার, আল-বদর, আল-শামস বাহিনী নিয়ে বিহারী যুদ্ধাপরাধী বাচ্চু খান ও কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে সকালে পার্বতিপুর থেকে ট্রেনযোগে বদরগঞ্জ আসে।
তারা অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গে বকশিগঞ্জ, বৈরাগীপড়া, দক্ষিণা বুজরুক, বুজরুক হাজিপুর, ঘলিশা হাজিপুর, ঘাটাবিল, রাম-কৃষ্ণনপুর, বনসবাড়ী, বানিয়াপাড়া, খোদ্দাবাগবার, টেকেরহাট, কোনাপাড়া, মন্ডলপাড়া ইত্যাদি গ্রামেও পার্শ্ববর্তী এলাকা ঘিরে ফেলে।
অতঃপর দখলদার বাহিনী নারী-পুরুষ ও শিশুদের ওপর ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে গুলি চালাতে শুরু করে। বাড়ী ঘরে আগুন দেয়, লুটপাট চালায় এবং অনেক গৃহবধূ, নারীকে ধর্ষণ করে এলাকায় এক বিভীষিকাময় পরিস্থিতির সৃষ্টি করে।
পরে তারা নানা বয়সের প্রায় দেড় হাজার লোককে ধরে পদ্মপুকুর ও ঝাড়রবিল এলাকায় নিয়ে যায় এবং সরাসরি গুলি চালিয়ে হত্যা করে।
স্থানীয়রা জানান, ঘটনায় এখানেই শেষ নয়- ঘাতকরা সকলের মৃত্যু নিশ্চিত করতে তাদের ওপর বেয়নেট চালায়।
পরে গবেষণা চালিয়ে এখানকার ঝাড়র বিল ও পদ্মপুকুর এলাকায় গণহত্যার শিকার প্রায় ৪শ শহীদের নাম পাওয়া গেছে।