নাটোরে ফ্রিল্যান্সারদের প্রশিক্ষণ চলছে

নাটোর, ২৭ মার্চ, ২০১৯ (বাসস) : তথ্য ও যোগাযোগ খাতে দক্ষ মানব সম্পদ তৈরি করার লক্ষ্যে নাটোরের শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টারে ফ্রিল্যান্সাদের প্রশিক্ষণ প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ আয়োজিত বিনামূল্যের ছয় মাস মেয়াদী প্রশিক্ষণে ছয়টি বিষয়ে মোট ৫০০ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করছে।
প্রতিটি ২১৬ ঘন্টার প্রশিক্ষণ কোর্সের মধ্যে রয়েছে কোডিগনেটর এন্ড ওয়ার্ডপ্রেস, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন, ডিজিটাল মার্কেটিং এন্ড ই-কমার্স, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েব ডিজাইন এবং টু-ডি এন্ড থ্রি-ডি এনিমেশন ভিডিওগ্রাফিক এন্ড ফটোগ্রাফিক। নাটোরের শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের তিনটি ল্যাব ছাড়াও সিংড়া উপজেলার দমদমা পাইলট স্কুল এন্ড কলেজের শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলছে।
প্রশিক্ষণের জন্যে আবেদন চাওয়া হলে কমপক্ষে এসএসসি পাস যোগ্যতার প্রায় তিন হাজার প্রার্থী আবেদন করেন। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে ৫০০ প্রশিক্ষণার্থী বাছাই করা হয়। গত ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষার্থীরা ইতোমধ্যে বেসিক কম্পিউটার ও ইংলিশ কমিউনিকেশনের কোর্স শেষ করেছেন। ইংলিশ কমিউনিকেশন কোর্স শেষে বৃটিশ কাউন্সিল পরীক্ষাও নিয়েছে। এখন ফলাফলের জন্যে অপেক্ষায় থাকা শিক্ষার্থীরা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছেন। প্রশিক্ষণ কর্মদিবসগুলোতে তিন ঘন্টার প্রশিক্ষণের মাঝে বিরতিতে প্রশিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে টিফিন প্রদান করা হচ্ছে। কোর্স মেটেরিয়াল ছাড়াও প্রশিক্ষণ শেষে প্রদান করা হবে সার্টিফিকেট।
ডিজিটাল মার্কেটিং এন্ড ই-কমার্স প্রশিক্ষণ ক্লাসে শিক্ষার্থীদের সাথে আলাপকালে তাঁরা প্রশিক্ষণের উন্নত ভেন্যুর জন্যে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। তাঁরা ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধি এবং পরবর্ত্তীতে প্রশিক্ষণ কোর্সের সময় ছয় মাস থেকে বৃদ্ধি করে এক বছর করার দাবী জানান। প্রশিক্ষণ মেয়াদ বাড়ানো হলে ফ্রিল্যান্সাদের দক্ষতা বাড়বে বলে তাঁরা মনে করেন। প্রশিক্ষার্থী শিরিন আকতার, ওমর ফারুক, হযরত আলীসহ প্রত্যেকেই ফ্রিল্যান্সার হওয়ার অদম্য ইচ্ছে প্রকাশ করেন।
প্রশিক্ষক কাওছার আহমেদ জানান, প্রশিক্ষার্থীরা সবাই আগ্রহ সহকারে বৃটিশ কাউন্সিলের পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। তাঁরা নিয়মিত ক্লাসে আসছেন।
ফ্রিল্যান্সার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ নাটোর জেলার সভাপতি গোলাম মওলা শাহীন বলেন, ফ্রিল্যান্সারদের দক্ষ করে গড়ে তুলতে প্রশিক্ষণ মেয়াদকাল এক বছর করা প্রয়োজন। প্রশিক্ষক ও প্রশিক্ষণার্থী নির্বাচনে আরো কিছুটা যতœশীল হলে প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্য সফল হবে। এছাড়া প্রশিক্ষণ বিনামূল্যে না করে কিছুটা হলেও কোর্স ফি নির্ধারণ করা উচিৎ বলে মনে করেন এ ফ্রিল্যান্সার সংগঠক।
শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার নাটোর ও সিংড়া অঞ্চলের সহকারী প্রোগ্রামার কামরুল ইসলাম বাসস’কে বলেন, প্রশিক্ষণকে সফল করতে সব রকমের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। আগামী মে মাসে প্রশিক্ষণ সমাপ্ত হবে।