সৌদি আরব বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে আগ্রহী

544

ঢাকা, ৭ মার্চ ২০১৯ (বাসস) : সৌদি সরকার বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে ব্যাপক বাণিজ্য সম্ভাবনা খতিয়ে দেখার কাজ করছে এবং সৌদি আরব বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্পর্ক বাড়াতেও আগ্রহী।
সৌদি আরবের দু’জন মন্ত্রীর নেতৃত্বে নয় সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল আজ বিকেলে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাতকালে এ আগ্রহের কথা জানান। সৌদি মন্ত্রীদ্বয় হচ্ছেন যথাক্রমে- বাণিজ্য ও পরিকল্পনা মন্ত্রী ড. মজিদ বিন আব্দুল্লাহ আল কোসাইবি এবং অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী মোহাম্মদ বিন মজিদ আল তাউজরি।
প্রতিনিধি দলটি জানায়, বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বিষয়ে একটি ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং এ দলটি সম্ভাবনাগুলোর বাস্তবায়নে যথাযথভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
তারা এসব সম্ভাবনার সদ্বব্যহারের জন্য সঠিক বাজারজাতকরণ ও যোগাযোগের ওপর গুরুত্বারোপ করেন এবং উল্লেখ করেন যে, কতিপয় ক্ষেত্রে বিশেষ করে তৈরি পোশাক (আরএমজি) ওষুধ ও কৃষি ক্ষেত্রে বাংলাদেশের উজ্জ্বল সম্ভাবনা রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের চলমান ব্যাপক উন্নয়ন প্রক্রিয়ার প্রশংসা করে মন্ত্রীদ্বয় বলেন, অতি অল্প সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ তাৎপর্যপূর্ণ অগ্রগতি অর্জন করেছে।
সৌদি প্রতিনিধিদলকে বঙ্গভবনে স্বাগত জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়নে দু’দেশের মধ্যে এ ধরনের উচ্চ পর্যায়ের সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যকার বিদ্যমান ঐতিহ্যবাহী সম্পর্ক এখন অংশিদারিত্বের সম্পর্কে পরিণত হয়েছে।’
১৯৭৩ সালে আলজেরিয়ার আলজিয়ার্সে অনুষ্ঠিত জোট নিরপেক্ষ দেশগুলোর ৪র্থ শীর্ষ সম্মেলনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে তৎকালীন সৌদি বাদশা ফয়সাল বিন আব্দুল আজীজ আল সৌদ-এর বৈঠকের উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, তখন থেকেই বাংলাদেশের সঙ্গে এই সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটছে।
রাষ্ট্রপ্রধান আরো বলেন, ‘এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক সৌদি আরব সফর সম্ভাবনার নতুন দুয়ার খুলে গেছে।’
প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব সফরকালে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) ও চুক্তি স্বাক্ষরের উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশ ঐসব সমঝোতা স্মারক ও চুক্তিগুলো বাস্তবায়নে অত্যন্ত আগ্রহী।
ভবিষ্যতে এই সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে বলে রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন।
সৌদি প্রতিনিধিদলে রয়েছেনÑ ঢাকায় নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত আব্দুল্লাহ বিন হাজ্জা আল-মুতাইরি, শ্রম ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের শ্রম বিষয়ক সেক্রেটারী, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ মন্ত্রণালয়ের বৈদেশিক বাণিজ্য বিষয়ক সহকারী আন্ডার সেক্রেটারী ও সরকারি বিনিয়োগ তহবিলের মার্কেটিং ও যোগাযোগ বিষয়ক জেনারেল সুপারভাইজার।
বৈঠকে অন্যান্যে মধ্যে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব দ্বিপক্ষীয় (এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগর) মাহবুব উজ্জামান, ওআইসি’র রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি গোলাম মসিহ ও মহাপরিচালক (পশ্চিমা এশিয়া) এম-আমিনুল হকও উপস্থিত ছিলেন।

image_printPrint