১৯৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি বাঙালির জীবনে ঐতিহাসিক ও অনন্য মাইল ফলক : স্পিকার

167

ঢাকা, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, ১৯৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি বাঙালির জীবনে ঐতিহাসিক ও অনন্য মাইল ফলক।
তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বায়ান্নোর ভাষা আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় ’৬৬’র ছয় দফা,’৬৯’র গণ অভ্যুত্থান এবং ’৭১’র রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জন-সবই একসূত্রে গাঁথা।
স্পিকার আজ পীরগঞ্জের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত এক আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
শুরুতেই পুরান ঢাকার চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রাণহানির ঘটনায় গভীর দুঃখ ও শোক প্রকাশ করে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
ড. শিরীন শারমিন বলেন, ‘একুশ মানে মাথা নত না করা’। যে কোন অন্যায়ের প্রতিবাদে ‘একুশ আমাদেরকে সামনে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা যোগায়’-উলে¬খ করে তিনি বলেন, বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের কাছে একুশের চেতনা তুলে ধরতে হবে। মাতৃভাষা বাংলা, স্বাধীনতা ও বঙ্গবন্ধু এক ও অবিচ্ছেদ্য বলেও স্পিকার উল্লেখ করেন।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে মাতৃভাষা বাংলা অর্জনের গৌরবগাঁথা তুলে ধরার পাশাপাশি তিনি মায়ের ভাষার মর্যাদা রক্ষায় সবাইকে দায়িত্বশীল হওয়ারও আহবান জানান।
পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার টিএমএ মমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রংপুরের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার , পৌর মেয়র তাজিমুল ইসলাম শামীম বক্তব্য রাখেন।
উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মন্ডল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোনায়েম সরকার মানু, রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শাহিদুল ইসলাম পিন্টু, পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিজুর রহমান রাঙ্গা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
পরে তিনি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণ করেন।
এর আগে স্পীকার পীরগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

image_printPrint