৯৮ রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন

129

ঢাকা, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন দলের বিপুল বিজয় এবং চতুর্থবারের মতো তাঁর প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার জন্য এ পর্যন্ত ৯৮ রাষ্ট্র ও সরকার এবং বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধান আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।
গত বুধবার প্রশ্নোত্তর পর্বে জাতীয় পার্টির এমপি রুস্তম আলী ফরাজীর এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে এ কথা জানান।
এ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড জে ট্রাম্প, বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, জার্মান চ্যান্সেলর এঞ্জেলা মার্কেল, ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ও ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী ড. রামি হামদাল্লাহ, চীন প্রেসিডেন্ট জি জিনপিং, চীনের স্টেট কাউন্সিলের প্রধান লি কেকিয়াং, সৌদি বাদশা সালাম বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, সুইস কনফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট উইলি মাইয়াবার, ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি, ইউএই প্রেসিডেন্ট খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান, কাতারের আমীর তামিম বিন হামাদ আল থানি, কাতারের প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ বিন নাসের বিন খলিফা আল থানি, ফিজির প্রধানমন্ত্রী জেভি বাইনি মারামা, শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা শ্রী সেনা ও শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে, ভুটানের রাজা জিগমে খেসার ন্যামগেইল ওয়াংগুবুক, ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ড. লোটে শেরিং, ভুটানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শেরিং টোবগে।
শেখ হাসিনা আরো জানান, ওমানের সুলতান কাবুস বিন সাইদ, বুরুনাই দারুস সালামের সুলতান হাজি হাসানাল বলকিয়াহ, সুদানের প্রধানমন্ত্রী মুতাজ মুসা আব্দুল্লাহ, মিসরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল সিসি, মৌরিতাসের প্রধানমন্ত্রী প্রভিন্ড কুমার যুগনাথ, নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি, সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লী সিয়েন, ভিয়েতনামের প্রধানমন্ত্রী এনগুয়েন জুয়ান ফুক, মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম মোহামেদ সোলিহ, উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম ইয়ং ন্যাম, উত্তর কোরিয়ার প্রধানমন্ত্রী প্যাক পং জু, নিকারাগুয়ার প্রেসিডেন্ট ডানিয়েল ওর্তেগা, লেবাননের প্রধানমন্ত্রী সাদ আর হারিরি, ক্রোয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী অন্দ্রেজ প্লেনকোভিক, বেলারুশের প্রধানমন্ত্রী সার্গেই রুমাস, হাঙ্গেরীর প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবান, নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ বুহারি জিসিএফআর, আফগান প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আশরাফ গনি, থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেনারেল প্রেয়াত চেং ও চে, সার্বিয়ার প্রধানমন্ত্রী আনা বর্নাবিক, দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন, ঘানার প্রেসিডেন্ট নানা আদ্দো ডাস্কওয়া আকুকো-আদ্দো, কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী সামাদেচ আক্কা মোহা সেনা পেদেই টেচো হুন সেন, পোল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মাতেউজ মোয়াভিটিল ও ভারতের কংগ্রেসের পার্লামেন্টারি পার্টির চেয়ারপার্সন সোনিয়াগান্ধী অভিনন্দন জানান।
প্রধান বলেন, অস্ট্রেলিয়ার চ্যান্সেলর- সেবাস্টিয়ান কুর্জ, জাপানের প্রধানমন্ত্রী সিনজো আবে, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোগান, গ্রীক প্রধানমন্ত্রী এলেক্সিস সিপ্রাস, অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন, নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুতে, জর্দানের প্রধানমন্ত্রী ওমর আল রাজ্জাক, শ্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী পিটার পেল্লেগ্রিনি, আজারবাইজানের প্রধানমন্ত্রী নভরুজ মাম্মদুভ, তিউনিশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইউসোফ চাহেড, বসনিয়া-হার্জেগোভিনার প্রধানমন্ত্রী ড. ডেনিস জেভিজদিক, নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী ইরনা সোলবার্গ, ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী লর্স লোকে, ফরাসী প্রধানমন্ত্রী এডওয়ার্ড ফিলিপ, কিরগিজ প্রধানমন্ত্রী মোখাম্মেদকালি এবলগাজিভ, আলজেরিয়ার প্রধানমন্ত্রী আহমেদ ওহাদিয়া।
ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. আবিয়া আহমেদ, আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ান, মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ, দক্ষিণ আফ্রিকার প্রধানমন্ত্রী মামামেলা সিরিল, জর্জিয়ার প্রধানমন্ত্রী মামুকা বাখতাদজে, স্লোভেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী মার্জান সারেচ ও মেসিডোনিয়ার প্রধানমন্ত্রী জোরান জায়েভ তাকে অভিনন্দন জানান।
আরো যারা অভিনন্দন জানিয়েছেন তারা হলেনÑ সৌদি আরবের যুবরাজ, প্রধানমন্ত্রী এইচআরএম মোহাম্মদ বিন সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী ও দুবাইয়ের শাসক মোহাম্মদ বিন রাশেদ আল মাকতুম, আবুধাবির যুবরাজ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সশস্ত্র বাহিনীর সুপ্রীম কমান্ডার শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান, কাতারের ডেপুটি আমির আব্দুল্লাহ বিন হামাদ আল সানি, নিকারাগুয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট রোজারিও মুরিলো, ভারতের মেঘালয় রাজ্যের গভর্নর তথাগত রায়, ভারতের গোয়ার গভর্নর মৃদুল সিনহা, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবনাথ ফাদনাসিস, আসামের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈ ও শ্রীলংকার বিরোধী দলীয় নেতা মাহিন্দ্র রাজা পাকসে।
এছাড়া অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থা ডি-৮ এর মহাসচিব দাতো কু জাফর কু শারি, আইপিএস নরমান (নিউইয়র্ক)-এর প্রেসিডেন্ট ওয়ালদার লিচেম, সার্কের মহাসচিব আমজাদ হুসাইন, বিমসটেকের মহাসচিব এম শহীদুল ইসলাম, ওআইসি সদস্য রাষ্ট্রগুলো পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের মহাসচিব মোহাম্মদ কোরাইশি নিয়াস, ওআইসির মহাসচিব এ আল ওসাইমিন, কমিউনিস্ট পার্টি অব চায়না, বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট হার্টউইগ শাফের, কলকাতার ভারত চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সীতারাম শর্মা, ইনস্টিটিউট অব সাউথ এশিয়ান উইমেনের পরিচালক প্রেম আহলুয়ালিয়া, এডিবির প্রেসিডেন্ট তাকেহিকো নাকাও, জাপান-বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি লীগের চেয়ারম্যান তারো আসোও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেসব সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধানগণ তাকে এবং বাংলাদেশের জনগণকে অভিনন্দন জানিয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিশ্ব নেতারা তাদের অভিনন্দন বার্তায় বাংলাদেশের জনগণের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও অব্যাহত সমৃদ্ধির জন্য আমাদের সরকারের সঙ্গে কাজ করে যাবার ইচ্ছা পুনর্ব্যক্ত করেছেন।’

image_printPrint