প্লাস্টিকের বিকল্প হবে পাট : বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী

146

ঢাকা ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : প্লাস্টিক পণ্যের বিকল্প হিসেবে পাটের ব্যবহার সর্বত্র করা হবে বলে জানিয়েছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক।
আজ সচিবালয়ে বাংলাদেশ জুট এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী একথা বলেন।
দস্তগীর গাজী বলেন, পাট আমাদের আদীকালের পণ্য। পাটই ছিল একমাত্র বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী খাত। পাটখাতের বৈষম্য দূরীকরণের প্রেক্ষাপটে মুক্তিযুদ্ধ সংগঠিত হয়েছিল। কারণ পাকিস্তান বাংলাদেশের উৎপাদিত পাট থেকে অর্জিত বৈদেশিক মুদ্রা দেশের উন্নয়নে সঠিকভাবে ব্যয় করত না। পাটশিল্পের শ্রমিকগণ ন্যায্য মজুরী পেত না। জাতির পিতা এসব বৈষম্যের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন। তার প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করে।
তিনি বলেন, সারাবিশ্বে এখন প্লাস্টিকের বিকল্প হিসেবে পাটের ব্যবহার করা হচ্ছে। আমাদের এখানেও প্লাস্টিকের বিকল্প হিসেবে পাটের পণ্যের ব্যবহার করা হবে।
পাট মন্ত্রী বলেন, সরকার কাঁচা পাট রফতানির সকল বাঁধা দূর করবে। বাংলাদেশে উৎপাদিত কাঁচা পাট অত্যন্ত উন্নতমানের হওয়ায় বিশ্বে পাটের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। এ সকল রপ্তানি সম্ভাবনাগুলো খতিয়ে দেখা হবে। তিনি বলেন, পাট চাষিকে বাঁচাতে সরকার বহুমুখী পাটপণ্য উৎপাদন,পণ্য ও কাঁচা পাট রপ্তানীর সকল বাঁধা দূর করার উদ্যোগ নেবে। এছাড়া বিজেএমসি অনেক পাট ব্যবসায়িদের সঠিক সময়ে তাদের পাওনা টাকা পরিশোধ করতে পারেনি। যার কারণে অনেকে ব্যবসায়িকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ব্যাংকগুলো থেকেও মিল মালিক বা রপ্তানিকারকরা যাতে সহজ শর্তে ঋণ সুবিধা পায় সে বিষয়ে সরকার কাজ করছে।
এদিকে দুপুরে বাংলাদেশ কটন এসোসিয়েশনের সঙ্গে এক আলোচনাসভায় গোলাম দস্তগীর বলেন, তামাক বর্জন করে তুলার চাষ বাড়ানো হবে। যেখানে তামাক চাষ করা হয় সেখানে মানুষ যেন তুলা চাষ করে সেটার জন্য উদ্যোগ নেওয়া হবে। আর তামাকের চাহিদা মেটানোর জন্য বিদেশ থেকে আমদানি করা হবে। এতে করে দেশের ট্যারিফও বাড়বে।
আলোচনা সভায় বাংলাদেশ জুট এসোসিয়েশন ও বাংলাদেশ কটন এসোসিয়েশনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

image_printPrint