ঢাবি থেকে ১৬ গবেষকের পিএইচ.ডি. এবং ২২ জনের এম.ফিল. ডিগ্রি লাভ

84

ঢাকা, ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৬ গবেষক পিএইচ.ডি. এবং ২২জন গবেষক এম.ফিল. ডিগ্রি লাভ করেছেন। ২৯ জানুয়ারি মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় তাদের এই ডিগ্রি প্রদান করা হয়।
পিএইচ.ডি. ডিগ্রী প্রাপ্তরা হলেন- বাংলা বিভাগের অধীনে শাহিনা আকতার, মোমেনুর রসুল, ইংরেজী বিভাগের অধীনে মো. এলহাম হোসেন, ইতিহাস বিভাগের অধীনে আনন্দ বিকাশ চাকমা, দর্শন বিভাগের অধীনে এনামুল হক, ভাষাবিজ্ঞান বিভাগের অধীনে মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান, সংগীত বিভাগের অধীনে আকলিমা ইসলাম কুহেলী, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধীনে মো. রুহুল আমিন সরকার, নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধীনে নাজিয়া মাহমুদ, আইন বিভাগের অধীনে আমিনুল ইসলাম, রসায়ন বিভাগের অধীনে এ.বি.এম. মাহফুজ উল আলম, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের অধীনে জিনাত ইয়াছমীন, প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধীনে নাজিয়া রিফাত জামান, মার্কেটিং বিভাগের অধীনে শমসাদ আহ্মেদ, ব্যাংকিং এন্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগের অধীনে মোস্তফা মাহমুদ হাসান, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধীনে মো. সাইদুল ইসলাম খান।
এম.ফিল. ডিগ্রী প্রাপ্তরা হলেন: বাংলা বিভাগের অধীনে নাদিয়া ইসরাত, ইতিহাস বিভাগের অধীনে শুভাশীষ মজুমদার, দর্শন বিভাগের অধীনে নাদিয়া কবির, আরবী বিভাগের অধীনে ফখরুল ইসলাম, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধীনে এস. এম. জাওয়াদুন নাহীন, ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের অধীনে মো. আব্দুস সালাম, তথ্যবিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধীনে আনিতা হেলেন, বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের অধীনে শাহ মোহাম্মদ জোনায়েদ, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধীনে মুহাম্মদ সাদ বিন শফিক, মারুফা মনি, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধীনে মো. সাইফউদ্দীন দুরুদ, নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধীনে মো. আশিক সরদার, উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের অধীনে উম্মে সাদিয়া, প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধীনে বার্থোলোমিয়া কেয়া ব্যাপারী, চিকিৎসা মনোবিজ্ঞান বিভাগের অধীনে উম্মে সালমা আফরোজ, শামীমা আক্তার, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের অধীনে কোর আয়েশা বেগম, কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের অধীনে মাসুদ করিম, একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের অধীনে নিগার সুলতানা, ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধীনে মো. ফেরদৌস হাসান, প্রাচ্যকলা বিভাগের অধীনে মোসা. মনিরা আক্তার এবং পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধীনে শায়লা সাবরিন।

image_printPrint