জ্বালানি খাতে যৌথ আঞ্চলিক সহযোগিতার আহ্বান বাংলাদেশের

161

ঢাকা, ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : প্রধানমন্ত্রীর জ্বালনি উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহি চৌধুরী বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে যৌথ প্রক্রিয়ায় আঞ্চলিক সহযোগিতার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন।
ড. এলাহি আজ ভারতের উত্তর প্রদেশের গ্রেটার নইদায় ইন্ডিয়া এক্সপো সেন্টারে ‘পেট্রোটেক-২০১৯’-এর মন্ত্রী পর্যায়ের অধিবেশনে প্রধান বক্তা হিসেবে এই অভিমত ব্যক্ত করেন।
আজ ঢাকায় প্রাপ্ত এক বার্তা অনুযায়ী এটি এশিয়ার সর্ববৃহৎ আন্তর্জাতিক তেল ও গ্যাস সংক্রান্ত সম্মেলন ও প্রদর্শনী। তিন দিনব্যাপী দ্বিবার্ষিক এ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।
ড. তৌফিক ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দায়িত্ব গ্রহণের পর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বাংলাদেশ সরকার যে অগ্রগতি অর্জন করেছে তা তুলে ধরেন।
টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সকল পর্যায়ের মানুষের জন্য জ্বালানি নিশ্চিত করতে সরকারের প্রচেষ্টার বিষয়ে তিনি জোর দেন।
উপদেষ্টা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিগত ১০ বছরে মানবিক উন্নয়ন সূচকে অগ্রগতি অর্জনসহ বাংলাদেশে দ্রুততর অর্থনৈতিক অগ্রগতি অর্জনের বিষয়েও তার বক্তব্যে তুলে ধরেন।
তিনি বলেন, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সেক্টরে ব্যাপক উন্নতি হয়েছে। দেশে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ ব্যবহারের পরিমাণ ৪৫ শতাংশ থেকে বেড়ে ৯০ শতাংশে উপনিত হয়েছে। আগামী ২০২০ সালের মধ্যে সার্বজনীন বিদ্যুৎ ব্যবহার নিশ্চিত করার আশা রয়েছে।
ড. তৌফিক এলাহী উন্নয়নশীল দেশের ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় নতুন ও উদ্ভাবনী সমাধান বের করার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। বাংলাদেশে ৫০ লক্ষাধিক বাড়ি সোলার পদ্ধতির মাধ্যমে বিদ্যুৎ সুবিধা গ্রহণ করছে।
তিনি বলেন, ভারত বাংলাদেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সেক্টরে সহযোগিতার পরিধি বাড়াচ্ছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দু’দেশের অংশীদারিত্ব অব্যাহত রাখতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।
ভারত সরকারের আমন্ত্রণে বিশ্বের ৬০টি দেশ থেকে ১৮ মন্ত্রী ও ৭ হাজার অংশগ্রহণকারী এই আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অংশগ্রহণ করছেন।
সম্মেলনের পাশাপাশি জ্বালানি উপদেষ্টা ভারতের পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস এবং দক্ষতা উন্নয়ন মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানের সাথে দু’দেশের প্রকল্পসমূহের অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করেন।
দু’নেতা প্রকল্পগুলোতে থেকে যাতে উভয়দেশ উপকৃত হতে পারে সে ব্যাপারে গুরুত্ব আরোপ করেন।

image_printPrint