শিশুদের ইন্টারনেট নিরাপত্তা নিশ্চিতে কন্টেন্ট ফিল্টারিংয়ের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে : মোস্তাফা জব্বার

378

ঢাকা, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, শিশুদের জন্য ইন্টারনেট নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কন্টেন্ট ফিল্টারিংয়ের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
তিনি বলেন, “ইতিমধ্যে কন্টেন্ট ফিল্টারিং করার সক্ষমতা বাংলাদেশ অর্জন করেছে। আগামী মার্চে এ প্রযুক্তি চালু করা সম্ভব। এটি চালু হলে পর্নোসহ বিপদগামী অনেক সাইট বন্ধ করে শিশুদের রক্ষা করা যাবে।”
আজ ঢাকায় কারওয়ান বাজারে সফটওয়্যার পার্কের সম্মেলন কক্ষে ইউনিসেফ আয়োজিত ‘বাংলাদেশে শিশুদের জন্য অনলাইন নিরাপত্তা’ বিষয়ক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী বলেন, ‘শিশুরা কিভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার করে এটি একটি বড় চ্যালেঞ্জ। আমাদের মনে রাখতে হবে শিশুদের কাছে আমরা কী কন্টেন্ট দিচ্ছি? শিশু উপযোগী কন্টেন্ট আমরা ইন্টারনেটে রাখিই না। শিশু পছন্দ করে এমন কন্টেন্ট দরকার। শিশুদের জ্ঞানার্জনের পদ্ধতির সঙ্গে আমাদের বিদ্যমান পদ্ধতিটি বিপরীতমুখী। সরকারের এখনকার চেষ্টা হচ্ছে শিশুসহ নাগরিকদেরকে ক্ষতিকর কন্টেন্ট থেকে রক্ষা করা।’
তিনি বলেন, ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আমাদেরকে ডিজিটাল হতে হবে, একই সঙ্গে ডিজিটাল নিরাপত্তাও নিশ্চিত করতে হবে।
মোস্তাফা জব্বার বলেন, ইন্টারনেট থেকে শিশুদের নিরাপদ রাখতে অভিভাবকদেরকেও সচেতন হতে হবে। প্যারেন্টাল গাইড নামে ইন্টারনেটের একটা অপশন আছে যা প্রয়োগের মাধ্যমে এসব কন্টেন্ট থেকে শিশুদের নিরাপদ রাখা যায় বলে মন্ত্রী জানান।
তথ্য বা ডেটা নিরাপদ রাখা বর্তমান ডিজিটাল বিপ্লবের যুগে আরো একটি কঠিন চ্যালেঞ্জ হিসেবে উল্লেখ করে মোস্তাফা জব্বার বলেন, এই বিষয়েও নজর দেওয়া হবে।
ফাইভ-জি আগামী দিনের বড় চ্যালেঞ্জ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আগামী দুই বছর পর প্রযুক্তি দুনিয়া এক বিস্ময়কর চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে যাচ্ছে। ফাইভ-জি’র চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষ জনসম্পদ গড়ে তোলার পাশাপাশি এখন থেকেই পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নের জন্য মন্ত্রী গুরুত্বারোপ করেন।

image_printPrint