জয়পুরহাটে চালের দাম স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছে

171

জয়পুরহাট, ২০ জানুয়ারি, ২০১৯ (বাসস) : বাজার মনিটরিংয়ের কারণে জেলার হাট-বাজারগুলোতে সম্প্রতি বৃদ্ধি পাওয়া চালের দাম কেজি প্রতি ৩-৪ টাকা কমে গেছে।
জেলার হাট-বাজার ঘুরে ক্রেতা-বিক্রেতারা জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচের পরেই হঠাৎ করেই বাজারে কেজি প্রতি চালের দাম ৩/৪ টাকা বৃদ্ধি পায়। চালের দাম বৃদ্ধির কারণ অনুসন্ধানে দ্রুত কাজ শুরু করে স্থানিয় প্রশাসন। ফলে বাজারে এক সপ্তাহের ব্যবধানে আবার চালের দাম কমে স্বাভাবিক অবস্থায় আসে। স্বর্ণ-৫ ধানের চাল ৩৪ টাকা কেজি থেকে কমে বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকায়, ব্রি-৪৯ জাতের চাল ৩৮ থেকে ৩৫ টাকা, গুটি স্বর্ণা ৩২ থেকে কমে ২৮ টাকা, বিআর-২৮ জাতের চাল ৪২ থেকে কমে ৪০ টাকা, মিনিকেট ৫০ থেকে কমে ৪৮ টাকা বিক্রি করতে দেখা যায়।
শহরের নতুনহাটের চাল ব্যবসায়ী আছাদুল ইসলাম বলেন, কি কারণে চালের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে জানিনা। কিনতে বেশি পড়ায় বেশি দামে বিক্রি করতে হয়েছে। জেলা শহরের মাছ বাজারের চাল ব্যবসায়ী আজিজার রহমান, বাবুল মিয়া বলেন, পর্যাপ্ত পরিমাণ চাল মজুদ রয়েছে। চাতাল মালিকরা কৃত্তিম সংকট সৃষ্টির চেষ্টা করায় চালের দাম হঠাৎ করেই কিছুটা বৃদ্ধি পেলেও বর্তমানে আবার কমে গেছে। পুরানাপৈল বাজারের ধান ব্যবসায়ী দীলিপ কুমার সেন বলেন, প্রকার ভেদে ধানের দাম প্রতি মণ একশ’ থেকে ১২০ টাক বৃদ্ধি পেলেও বর্তমানে কমে গেছে। জয়পুরহাট সদর উপজেলা চালকল মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক নিখিল চন্দ্র মন্ডল বলেন, অধিকাংশ হাসকিং মিল বন্ধ। গুটি কয়েক অটো চালকলে ধান থাকায় কৃত্তিম সংকটের চেষ্টা করা হয়েছে। সরকারের দ্রুত পদক্ষেপের কারণে বাজারে চালের দাম কমেছে বলেও জানান তিনি।

image_printPrint