আগামী বাজেটে মাতৃত্বকালীন ভাতাভোগীর সংখ্যা ও টাকার পরিমাণ বৃদ্ধি করা হবে : চুমকি

169

ঢাকা, ৩০ মে, ২০১৮ (বাসস) : মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেছেন, আগামী অর্থ বছরের বাজেটে মাতৃত্বকালীন ভাতাভোগীর সংখ্যা ৮ লাখ থেকে বৃদ্ধি করে সাড়ে ৯ লাখে উন্নত করা হবে এবং টাকার পরিমাণও ৫শ’ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮শ’ টাকা করা হবে।
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্ভুক্ত মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রাপ্ত হত:দরিদ্র মায়েদের জন্য হেলথ ক্যাম্প উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী একথা বলেন।
আজ বুধবার সকালে ঢাকা শিশু একাডেমী মিলনায়তনে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক সচিব নাছিমা বেগম এনডিসি।
মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজী রওশন আরা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন । উদ্বোধনের সময় প্রতিমন্ত্রী মায়েদের হাতে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে উপহার সামগ্রী তুলে দেন।
মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অনুষ্ঠানে মায়েদের উদ্দেশ্যে বলেন, শুণ্য থেকে ৫ বছরের মধ্যে শিশুর ৯০ শতাংশ বিকাশ সাধিত হয়। সুতরাং এই সময় শিশুদের প্রতি যতœশীল হতে হবে।
চুমকি বলেন, সরকার যে টাকা আপনাদের দিয়েছেন এই টাকা দিয়ে নিজে এবং শিশুকে ভাল খাবার খাওয়াবেন।
এ সময় সচিব নাছিমা বেগম মায়েদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনাদের জন্য ডাক্তারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আপনারা প্রত্যেকে ডাক্তারের সাথে কথা বলবেন। আপনাদের কি সমস্যা তা ডাক্তারকে বলবেন, এর জন্য কোন টাকা দিতে হবে না।’
উল্লেখ্য, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রায় ৪ হাজার মা’কে মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান করে। এই সকল মায়ের স্বাস্থ্য সেবা দেয়ার জন্য হেলথ ক্যাম্প চালু করা হয়েছে। এই লক্ষ্যে প্রত্যেকে স্বাস্থ্য সেবা পাবেন। তাছাড়া তাদেরকে বিভিন্ন দক্ষতামূলক প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।

image_printPrint