নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে উ. কোরিয়ার ‘জোরালো’ পদক্ষেপ নেয়া উচিত : দ. কোরিয়ার মুন

108

সিউল, ১০ জানুয়ারি, ২০১৯ (বাসস ডেস্ক) : দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার নিশ্চিত করতে নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে পিয়ংইয়ংয়ের আরো জোরালো ও কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন। ওয়াশিংটন ও আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া পিয়ংইয়ংয়ের মধ্যে আলোচনা স্থবির হয়ে পড়ায় তিনি বৃস্পতিবার এ কথা বলেন। খবর এএফপি’র।
তিনি আরো বলেন, উত্তর কোরিয়ার অব্যাহত নিরস্ত্রীকরণ প্রচেষ্টা সহজতর করতে একটি ‘শান্তিপূর্ণ রাষ্ট্র’ গড়ে তোলার ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের সম্মতির এবং ১৯৫০ সাল থেকে ১৯৫৩ সাল পর্যন্ত চলা কোরীয় যুদ্ধের আনুষ্ঠানিক অবসান ঘোষণার মতো অনুরূপ বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয় অবশ্যই বিবেচনা করতে হবে।
‘কোরীয় উপদ্বীপের নিরস্ত্রীকরণের’ ব্যাপারে উত্তর কোরিয়া কাজ করতে তাদের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছে।
উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত তাদের প্রথম সম্মেলনে স্বাক্ষরিত চুক্তির কথা মুন স্বীকার করেন। তবে এ চুক্তিতে বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি।
একইসঙ্গে মুন নিরস্ত্রীকরণের ধারণা ট্রাম্পের দাবি থেকে ভিন্ন নয় কিমের এ দাবির বিষয়ে তার সংশয়ের কথা তুলে ধরে সিউলে ব্লু হাউজে সাংবাদিকদের বলেন, ‘ট্রাম্প, শি জিনপিং, পুতিন ও আমাকেসহ বিদেশি অনেক নেতাকে কিম আশ্বাস দিয়েছেন যে এক্ষেত্রে পোষণ করা তার ধারণা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দাবি থেকে আলাদা কিছু নয়। তবে এ বিষয়ে আমার সংশয় রয়েছে।’
মুন আরো বলেন, এ সপ্তাহে উত্তর কোরিয়ার নেতার চীন সফরের কারণে মনে করা হচ্ছে ট্রাম্প ও কিমের মধ্যে শিগগিরই দ্বিতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
তিনি এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আমি মনে করি চেয়ারম্যান কিম জং উনের চীন সফর যুক্তরাষ্ট্র-উত্তর কোরিয়ার মধ্যে দ্বিতীয় সম্মেলনের সফলতার ক্ষেত্রে অত্যন্ত ইতিবাচক হবে।
তিনি বলেন, দ্বিতীয় সম্মেলনে করা চুক্তিতে উভয় পক্ষের বিভিন্ন পদক্ষেপের বিষয়টি সুস্পষ্ট করা হবে।

image_printPrint