শেষ সিরিজ থেকে অনুপ্রেরণা নিচ্ছেন সৌম্য

148

ঢাকা, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : সিলেটে সিরিজের প্রথম টি-২০ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে পরাজিত হয়েছে বাংলাদেশ। ফলে দ্বিতীয় ম্যাচের আগে পুরোপুরিভাবেই ব্যাকফুটে টাইগাররা। আগামীকাল ঢাকায় দ্বিতীয় ম্যাচে হারলে সিরিজ হাত ছাড়া হবে বাংলাদেশের। তারপরও আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ। কারণ এই দলটির বিপক্ষেই পিছিয়ে পড়েও নিজেদের শেষ টি-২০ সিরিজে জিতেছিল টাইগাররা। তাই ঐ সিরিজ থেকে অনুপ্রেরণা নিচ্ছেন বাংলাদেশের বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার।
বাংলাদেশ সর্বশেষ টি-২০ সিরিজ খেলেছে চলতি বছরের আগস্ট। ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে বাংলাদেশ। তবে প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৭ উইকেটে হেরেছিলো টাইগাররা। এতে নিজেদের উপর আত্মবিশ্বাস হারায়নি বাংলাদেশ। ঠিকই শেষ দু’টি টি-২০ জিতে নেয় টাইগাররা। ফলে সিরিজও জিতে বাংলাদেশ। তাই ঐ সিরিজ থেকে অনুপ্রেরণা খুজছেন সৌম্য। দ্বিতীয় টি-২০’র আগে আজ সৌম্য বলেন, ‘একটা ম্যাচ পিছিয়ে আছি আমরা, চেষ্টা করবো শক্তভাবে ফিরতে। শেষ সিরিজেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে আমরা প্রথম ম্যাচ হেরেছিলাম, পরের দু’ম্যাচে আমরা ভালো ভাবে কামব্যাক করেছি। প্রথম ম্যাচে যেই ভুলগুলো করেছি, যেমন আর্লি কিছু উইকেট পড়েছে সেটা যেন পরের ম্যাচে না হয়, তাহলে ভালো হবে।’
চলমান সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ জয় করে বাংলাদেশ। দু’টি ফরম্যাটেই জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করেছিলো টাইগাররা। তবে টি-২০ সিরিজে হার দিয়ে শুরু করতে হয় বাংলাদেশ। এমন ম্যাচ হারের কারণও জানালেন সৌম্য, ‘সবাই তো জানি এই ফরম্যাটে তারা বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দল। আমরাও যে খারাপ করছি তা না। আমাদের মিসটেক ছিল। কোন বুদ্ধির ঘাটতি ছিল হয়তো। আমরা তাড়াতাড়ি তাদেরকে চার্জ করতে গিয়েছি। আমরা যদি বুদ্ধি খাটিয়ে খেলতাম, পেসারদের প্রথম কিছু ওভার যদি আমরা হ্যান্ডেল করতাম, তাহলে শেষের দিকে আমরা রান আরও কাভার করতে পারতাম। হয়তো উইকেট ছিল না বিধায়, উইকেট আর্লি পড়ে যাওয়ায় মাঝখানে একটু স্লো খেলতে হয়েছে। পরের ম্যাচে যাতে তাড়াতাড়ি উইকেট না পড়ে সেটাই চেষ্টা করা হবে। প্রথম দিকে, আমরা যারা আছি, তাঁরা যদি পাওয়ারপ্লেটা সুন্দরভাবে ব্যবহার করতে পারি, উইকেটটা হাতে রাখতে পারি, শেষের দিকে ওইটা ভালো হবে।’
গেল ম্যাচে সাকিবই দলকে একা টেনেছেন। উপরের সারি ও মিডল-অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা পুরোপুরি নিজেদের মেলে ধরতে পারেননি। তবে সাকিবের সাথে যদি আর একজন ব্যাটসম্যান বড় ইনিংস খেলতে পারতো তবে ম্যাচের চিত্র অন্যরকম হতে পারতো বলে মনে করেন সৌম্য, ‘এক্সট্রা না, যেমন আপনি বলেছেন, সাকিব ভাই একা টেনে নিয়ে গেছে। সাকিব ভাইর সাথে যদি আমরা আরেকজন রান করত তাহলে ১৩০ এর জায়গায় ১৬০ হয়ে যেত। তখন খেলার ধরন অন্য রকম হতে পারতো। বোলারদের আত্মবিশ্বাসও বেশি থাকতো। তারপরও তারা অনেক আলো ব্যাট করছে। পাওয়ারপ্লে’তে অনেক রান করেছে ওরা। আমরা যদি সেখানে ডট বলের সংখ্যা বেশি বাড়াতে পারতাম, তাহলে হয়তো খেলাটা আরেকটু দূর পর্যন্ত যেত।’

image_printPrint