রাজধানীতে মানবপাচারকারী চক্রের ৫ সদস্য আটক

38

ঢাকা, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : রাজধানীর উত্তরা ও মিরপুর এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে মানবপাচারকারী সংঘবদ্ধ চক্রের প্রধানসহ পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নে (র‌্যাব-১) উত্তরার একটি দল।
গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- দল নেতা মো: আসাদুজ্জামান আসাদ (৩৯), মো: ওসমান গাজী (৪৮), মো: সিরাজুল ইসলাম (৫২), মো: টিপু সুলতান (৫৫), ও মো: লিটন মাহমুদ (৩৫)।
তাদের কাছ থেকে ৩২ টি পাসপোর্ট, ৭ টি জাল ভিসা, ১টি বিমানের জাল টিকেট, ৩৪ লাখ টাকার বিভিন্ন ব্যাংকের চেক, ১৫টি স্বাক্ষরিত স্ট্যাম্প, ১টি ল্যাপটপ, ২টি কম্পিপ্টার, ১টি কালার প্রিন্টার, ৫টি মোবাইল ফোনসহ চাকুরী প্রার্থীদের অসংখ্য জীবন বৃত্তান্ত উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) সিনিয়র এএসপি মো: মিজানুর রহমান ভুঁইয়া বলেন,বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে রাজধানীর উত্তরখান, উত্তরার বেড়ী বাঁধ ও মিরপুর এলাকা থেকে মানবপাচার চক্রের এই সদস্যদের আটক করে র‌্যাব-১।
এ বিষয়ে আজ শুক্রবার রাজধানীর উত্তরায় র‌্যাব-১-এর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এসময় র‌্যাব-১ এর কমান্ডিং অফিসার (সিও) লেফটেন্ট্যান্ট কর্ণেল সারওয়ান বিন কাশেম সহ অন্যন্য র‌্যাব কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।
সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১ এর উপ-অধিনায়ক মেজর রাকিবুজ্জামান জানান, এই প্রতারক চক্রের দলনেতা মো: আসাদুজ্জামান আসাদ রাজধানীর উত্তরায় একাধিক অফিস খুলে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে ইউরোপ ও আমেরিকার বিভিন্ন দেশে গমনেচ্ছুদের প্রলুব্ধ করতো। এক পর্যায়ে তারা দালাল চক্রের মাধ্যমে বিদেশ গমনেচ্ছুদের তার অফিসে নিয়ে আসত। এরপর তাদের টুরিষ্ট ভিসা, কখনো জাল ভিসা, জাল টিকেট দিয়ে একেক জনের কাছ থেকে ৫ থেকে ১৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিতো।
মেজর রাকিবুজ্জামান বলেন, জাল ভিসা প্রস্তুতের জন্য ওসমান গাজী, টিপু ও লিটন তাকে সহায়তা করতো। চাকুরী প্রার্থীদের তার অফিসে আনার জন্য ওসমান, টিপু ও সিরাজসহ আরও কয়েকজন দালাল হিসেবে কাজ করতো।
তিনি আরো বলেন, দলনেতা আসাদ বিদেশ গমনেচ্ছুদের কানাডা, তাইওয়ান, পোল্যান্ড, ইরাক, দুবাই ও ভিয়েতনামসহ বিভিন্ন দেশে পাঠানোর কথা বলে বিপুল পরিমাণ টাকা হাতিয়ে নেয়।

image_printPrint