স্বল্পদৈর্ঘ্য ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্র উৎসব শুরু আজ

126

ঢাকা, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে দেশব্যাপী একযোগে ৬৪টি জেলায় ‘বাংলাদেশ স্বল্পদৈর্ঘ্য ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৮’ আজ শুরু হচ্ছে।
আটদিনব্যাপী উৎসব চলবে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। উৎসবে মোট ৭০টি চলচ্চিত্র ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হবে।
শনিবার ৮ ডিসেম্বর বিকেল ৫টায় একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে উৎসবের উদ্বোধন করা হবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি।
শিল্পকলা একাডেমি থেকে বাসসকে জানানো হয়, এই উৎসব উপলক্ষে গঠিত পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট নির্বাচক কমিটির সদস্যবৃন্দ উৎসবে প্রদর্শনের জন্য ৪৮টি স্বল্পদৈর্ঘ্য এবং ২২টি প্রামাণ্যচিত্রসহ ৭০টি চলচ্চিত্র মনোনীত করেছেন। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের ৬৪ জেলায় নির্বাচিত চলচ্চিত্র ও প্রামাণ্য চিত্রগুলো প্রদর্শিত হবে।
চলচ্চিত্র নির্বাচক কমিটির সদস্যরা হলেন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. ফাহমিদুল হক, বাংলাদেশ প্রামাণ্যচিত্র পর্ষদের উপদেষ্টা সাজ্জাদ জহির, শর্ট ফিল্ম ফোরামের এ কে রেজা গালিব, ফেডারেশন অব ফিল্ম সোসাইটিজ অব বাংলাদেশ-এর সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন মামুন এবং শিল্পকলা একাডেমির নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের সহকারী পরিচালক চাকলাদার মোস্তফা আল মাস্উদ।
স্বল্পদৈর্ঘ্য ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্র উভয়ক্ষেত্রে পৃথকভাবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতা এবং বিশেষ জুরি পুরষ্কার প্রদান করা হবে। পুরষ্কার প্রদানের লক্ষে চলচ্চিত্র নির্মাতা সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী’কে চেয়ারম্যান করে ৫ সদস্যের একটি জুরি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হচ্ছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা মোরশেদুল ইসলাম, চলচ্চিত্র নির্মাতা ফরিদুর রহমান, চলচ্চিত্র গবেষক অনুপম হায়াৎ, কমিটির সদস্য সচিব বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডমির সচিব মো. বদরুল আনম ভূঁইয়া।
স্বল্পদৈর্ঘ্য ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্র উভয়ক্ষেত্রে পৃথকভাবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্রের পুরষ্কারের অর্থমূল্য থাকবে ১ লাখ টাকা, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতা ৫০ হাজার টাকা ও বিশেষ জুরি পুরষ্কার ২৫ হাজার টাকা। আগামি ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে উৎসবের সমাপনী দিনে পুরষ্কার ঘোষণা করা হবে এবং উৎসবে অংশগ্রহণ করা চলচ্চিত্রের সকল নির্মাতাদের সনদপত্র প্রদান করা হবে।
একাডেমি থেকে জানানো হয়, ২০১৫ সাল থেকে শিল্পকলা একাডেমি এই উৎসবের আয়োজন করে আসছে। এ ছাড়াও ২০১৭ সালে দেশব্যাপী ৬৪ জেলায় ‘বাংলাদেশ শিশু চলচ্চিত্র উৎসব’ আয়োজন করে একাডেমি। ৬৪টি জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে ফিল্ম সোসাইটি গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

image_printPrint