বাসস দেশ-২৭ : শাহরিয়ার শহীদ ছিলেন বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় নিবেদিত প্রাণ

বাসস দেশ-২৭
শাহরিয়ার-স্মরণ সভা
শাহরিয়ার শহীদ ছিলেন বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় নিবেদিত প্রাণ
ঢাকা, ২৮ নভেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস)-এর সদ্য প্রয়াত ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শাহরিয়ার শহীদের স্মরণ সভায় বক্তারা বলেছেন, তিনি ছিলেন সৎ ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় নিবেদিত প্রাণ, যিনি স্বপ্ন দেখতে ভালো বাসতেন।
স্মরণ সভায় বক্তৃতাকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)’র ভিসি অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, ‘শাহরিয়ার ছিলেন এক স্বাপ্নিক মানুষ। তিনি স্বপ্ন দেখতে ভালো বাসতেন এবং সেই স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দেয়ার চেষ্টা করতেন।’
ঢাবির গণ সংযোগ সাংবাদিকতার বিভাগের শাহরিয়ার শহীদের সহপাঠী ও শুভার্থীরা আজ নগরীর জাতীয় প্রেসক্লাবে এ স্মরণ সভার আয়োজন করেন।
জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় অন্যান্যের মধ্যে ৭১ টিভির পরিচালক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, বাসস’র সাবেক সিটি এডিটর অজিত কুমার সরকার, বাসস’র প্রধান বার্তা সম্পাদক আনিসুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধি মধুসুদন মন্ডল ও অনুপ কুমার খস্তগীর, বাসস’র সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক মোফাকখারুল আনাম ও আজিজুল ইসলাম ভূইয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণসংযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক মফিজুর রহমান এবং রোবায়েত ফেরদৌস বক্তৃতা করেন।
আরেফিন সিদ্দিক বলেন, শাহরিয়ার মৃত্যু তার পরিবার, সাংবাদিকতার ক্ষেত্র ও তার কর্মস্থল বাসস’র জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি।
বক্তারা বলেন, শাহরিয়ার শহীদ একজন আধ্যাত্মিক ব্যক্তিত্ব ছিলেন। তিনি সুফিবাদে বিশ্বাস করতেন। তার সুফিবাদী চিন্তা তাকে একজন অসাম্প্রদায়িক ব্যক্তি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছে। তিনি তার কর্মের মাধ্যমে আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবেন।
বক্তারা শাহরিয়ার শহীদের রুহের মাগফিরাত ও চির শান্তি কামনা করেন।
শাহরিয়ার শহীদ গত ১৭ নভেম্বর ৫৫ বছর বয়সে নগরীর একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বাবা এ কে এম শহীদুল হক ছিলেন অধুনালুপ্ত বাংলাদেশ টাইমসের সম্পাদক।
শাহরিয়ার তার স্ত্রী, একমাত্র পুত্র সন্তান, অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
ঢাকা রিপোর্টার ইউনিটির (ডিআরইউ)’র প্রতিষ্ঠাতা সদস্য শাহরিয়ার শহীদ পদক বিজয়ী মুক্তিযোদ্ধাদের সাক্ষাৎকার ভিত্তিক ৩০টির বেশি বই প্রকাশ করেছেন।
তিনি মুক্তিযুদ্ধের ওপর কিছু তথ্যচিত্র নির্মাণ করেছেন এবং মুক্তিযুদ্ধের অঞ্চল ভিত্তিক ইতিহাস লিখেছেন।
বাসস/এসএএইচ/অনুবাদ-এইচএন/২১৩৫/বেউ/-কেএমকে