বড় হয়ে ওঠার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন পরিশ্রম : সংস্কৃতিমন্ত্রী

138

নীলফামারী, ২৭ নভেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘বড় হয়ে ওঠার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন পরিশ্রম। ফাঁকি দিয়ে কখনও গন্তব্যে পৌঁছানো যায় না। এজন্য নিরন্তর পরিশ্রম করতে হবে।’
শহরের শহীদমিনার চত্ত্বরে আজ মঙ্গলবার দিনব্যাপী ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের সাহিত্য সমাবেশ প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতিমন্ত্রী একথা বলেন। ভিশন ২০২১ নামের স্বেচ্ছাসেবী একটি সংগঠন এই সমাবেশের আয়োজন করে।
ভিশন ২০২১ এর প্রধান সমন্বয়কারী ওয়াদুদ রহমান জানান, জেলা সদরের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক ৪২১টি বিদ্যালয়ের কবিতা ও ছড়া লিখন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে ২২ হাজার ৪৩৪ ক্ষুদে শিক্ষার্থী । তারা প্রত্যেকে লিখেছে একটি করে কবিতা অথবা ছড়া। এসব ছড়া কবিতার মধ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে পাঁচ হাজার কবিতা ছড়া নির্বাচন করে ঢাকায় বিচারক ম-লীর কাছে পাঠানো হয়। সেখান থেকে বিচারকম-লীর বাছাইয়ে ৪৫৭টি ছড়া কবিতা নির্বাচন করে একটি বই ছাপানো হয়েছে। মঙ্গলবার ওই অনুষ্ঠানে ‘আমরা নবীন, আমরা কিশোর’ নামে বইটির মোড়ক উম্মোচন শেষে অংশগ্রহনকারীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিরা।
বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের সভাপতি অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ, কালের কণ্ঠের সম্পাক ইমদাদুল হক মিলন, কথা সাহিত্যিক আখতার হুসেন, সুজন বড়–য়া, অভিনয় শিল্পী নুসরাত জাহান তিশা, প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান পাঞ্জেরীর চেয়ারম্যান কামরুল হাসান শায়েখ, জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল প্রমুখ বক্তব্য দেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনটির প্রধান সমন্বয়কারী ওয়াদুদ রহমান। যাদু শিল্পী শাহিন শাহ শিশুদের উদ্দেশ্যে যাদু প্রদর্শন করেন।
সংস্কৃতিমন্ত্রী নূর বলেন, ‘সবার ভেতরে মেধা আছে, প্রতিভা আছে, সম্ভবনা আছে। মেধা ও সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে হবে শ্রমের মধ্য দিয়ে। সেখানে আমাদের অভিভাবক, শিক্ষক ম-লীর একটি বড় ভূমিকা রয়েছে। তারাই তৈরি করতে পারেন আগামীর বাংলাদেশ। যে বাংলাদেশ আমরা পেয়েছি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে, এই কথাটা আমাদের মনে রাখতে হবে’।
সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের পৃষ্ঠপোষকতায় ২০১৫ সাল থেকে এমন আয়োজন করে আসছে সংগঠনটি। সে বছর ১৬ হাজার, দ্বিতীয়বার ২০১৭ সালে সাড়ে ১৮ হাজার এবং এবছর ২২ হাজার ৪৩৪ জন ক্ষুদে শিক্ষার্থী অংশ নেয় প্রতিযোগিতায়।

image_printPrint