বাংলাদেশে ক্ষুদ্র শিল্প উন্নয়নে এডিবি ৫০ মিলিয়ন ডলার দেবে

361

ঢাকা, ২৭ নভেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) মাধ্যমে বাংলাদেশে ক্ষুদ্র শিল্প উদ্যোক্তদের আরো উৎসাহিত করতে ৫০ মিলিয়ন ঋণ সহায়তা প্রদান অনুমোদন করেছে।
এডিবি’র এই অর্থ সহায়তা বাংলাদেশে ক্ষুদ্র শিল্প উদ্যোক্তাদের জন্য স্বল্প মেয়াদে অর্থ ঘাটতি মেটাতে সহায়তা করবে। এই অর্থ অংশীদার সংস্থাগুলোকে লোন দিতে পিকেএসএফকে দেয়া হবে। প্রায় ৪০ হাজার ক্ষুদ্র উদ্যোতা কে সাব লোন দেয়া হবে। এদের ৭০ শতাংশই নারী। এডিবি’র দেয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি আজ এ খবর জানানো হয়।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তির খবরে বলা হয়, মধ্যবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আথির্ক কৌশল উন্নয়নে এবং দীর্ঘমেয়াদের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক শক্তি অজর্নের জন্য প্রকল্পটি পিকেএসএফকে সহায়তা করবে।
এ ছাড়া ব্যবসা সম্প্রসারন এবং মান নিয়ন্ত্রণ, ব্রান্ডিং, প্যাকেজিং ও মাকের্টিং এর মাধ্যমে ব্যবসা উন্নয়নের জন্য ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের সহায়তা করবে। প্রকল্পের মোট ব্যায়ের মধ্যে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তরা দিবে ১২.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।
এডিবি’র সিনিয়ির পোর্টফোলিও ম্যানেজমেন্ট বিশেষজ্ঞ মেউমি ওজাকি বলেন, বাংলাদেশে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা খুবই অর্থ সহায়তা পেয়ে থাকে। ফলে তারা ব্যাংক অর্থ সহায়তার চেয়ে চিরাচরিত ক্ষুদ্র ঋণের ওপরই নির্ভর করে।
এডিবি কর্মকর্তা আরো বলেন, ক্ষুদ্র আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের অর্থ সহায়তা বাড়াতে পারলে গ্রামীন অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এবং আয় ও কর্মসংস্থানের সুযোগ আরো বাড়বে। ৭৫৮টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে গঠিত বাংলাদেশ মাইক্রো ফাইন্যান্স ইন্ডাষ্ট্রি ৩০ মিলিয়ন গ্রাহককে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। মাইক্রো ফাইন্যান্স মূলত পল্লী এলাকায় দরিদ্র ও স্বল্প আয়ের লোকদেরকে ক্ষুদ্র শিল্প স্থাপনে অর্থ সহায়তা দিচ্ছে।
এডিবি বলেছে, গ্রামে নারীরা কেবলমাত্র অর্থের অভাবেই ক্ষুদ্র শিল্প স্থাপনে বাধাগ্রস্থ হচ্ছে না, তাদের বিজনেস ম্যানেজমেন্ট, উদ্যোক্তা, কারিগরি দক্ষতা, তথ্য ও নেটওর্য়াকিং সাপের্টেরও অভাব রয়েছে। সরকার গ্রামীন অর্থনীতি গতিশীল করতে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের অর্থ সহায়তা প্রদানে ১৯৯০ সালে পিকেএসএফ প্রতিষ্ঠা করে।
ক্ষুদ্র ও মাঝারি ঋণদান প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য গুরুত্বপূর্ণ অর্থের উৎস হিসাবে কাজ করছে পিকেএসএফ। তবে এই প্রতিষ্ঠানের বর্তমান তহবিলের অবস্থা পিকেএসএফ এবং এর অংশীদার সংগঠনগুলো কেবলমাত্র তাদের নিজস্ব সদস্যদের চাহিদা মেটাতে পারে। এডিবি’র এই ঋণ সহায়তা পিকেএসপি’র এবং অংশীদার সংগঠনগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে অবদান রাখবে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

image_printPrint