হলি আর্টিজানে হামলায় ৮ আসামির বিচার শুরু, সাক্ষ্য ৩ ডিসেম্বর

159

ঢাকা, ২৬ নভেম্বর ২০১৮ (বাসস) : গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলায় ২২ জন নিহত হওয়ার মামলায় ৮ আসামির বিচার শুরু করেছে ট্রাইব্যুনাল।
সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান আজ হলি আর্টিজানে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশ দিয়ে এ বিচার শুরু করেন। আগামী ৩ ডিসেম্বর সাক্ষ্য গ্রহণের দিনও ঠিক করে আদেশ দিয়েছে আদালত।
অভিযুক্ত আসামিরা হলেন, হামলার মূল সমন্বয়ক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কানাডার নাগরিক তামিম চৌধুরীর সহযোগী আসলাম হোসেন ওরফে রাশেদ ওরফে আবু জাররা ওরফে র‌্যাশ, ঘটনায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক সরবরাহকারী নব্য জেএমবি’ নেতা হাদিসুর রহমান সাগর, নব্য জেএমবির অস্ত্র ও বিস্ফোরক শাখার প্রধান মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান, জঙ্গি রাকিবুল হাসান রিগ্যান, জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব ওরফে রাজীব গান্ধী ও হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী আব্দুস সবুর খান (হাসান) ওরফে সোহেল মাহফুজ, মো. মামুনুর রশিদ ও মো. শরিফুল ইসলাম।
আসামিদের মধ্যে মামুনুর রশিদ ও শরিফুল ইসলাম পলাতক রয়েছেন। এছাড়া কারাগারে থাকা আসামিদের মধ্যে বড় মিজান, সাগর, র‌্যাশ ও রিগ্যান হামলার দায় স্বীকার করে আদালতে দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
২০১৬ সালের ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গিরা হামলা চালিয়ে ১৭ বিদেশিসহ ২০ জনকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করে। এর আগে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশের ওপর গ্রেনেড হামলা চালায় জঙ্গিরা। গ্রেনেড হামলায় ডিবি পুলিশের সহকারী কমিশনার (এসি) রবিউল ইসলাম ও বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন নিহত হন। যৌথ বাহিনী পরে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করে। অভিযানে ছয় জঙ্গির সবাই নিহত হন।

image_printPrint