আয়কর মেলায় শেষ সময়ে উপচেপড়া ভিড়

313

ঢাকা, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮(বাসস) : সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলার শেষ দিনে করদাতাদের ঢল নেমেছে।দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে আয়কর বিবরণী বা রিটার্ন জমা দিচ্ছেন করদাতারা।সোমবার শেষ বিকেলে ঢাকার অফিসার্স ক্লাবে করমেলার কররিটার্ন বুথগুলোতে তুলনামূলক বেশি ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে।
নতুন নিবন্ধন (ই-টিআইএন) স্টলগুলোতে ভিড় ছিল বেশি। মেলায় কর সেবা নিতে শেষ সময়ে ছুটে এসেছেন সেবাগ্রহীতারা।সন্ধ্যা পাঁচটায় মেলার শেষ সময় হলেও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ঘোষণা করেছে মেলা প্রাঙ্গণে যতক্ষণ করদাতারা থাকবেন ততক্ষণ পর্যন্ত সেবা দেয়া হবে।আর সমাপনী অনুষ্ঠান হবে সন্ধ্যা সাতটায়। এনবিআর সদস্য ও মেলার সমন্বয়কারী জিয়া উদ্দিন মাহমুদ বলেন,‘মেলার শেষ দিন আজ যতক্ষণ পর্যন্ত করদাতারা লাইনে থাকবেন ততক্ষণ রিটার্ন জমা নেয়া হবে।গতকাল রোববারও আমরা নির্ধারিত সময়ের পরে রিটার্ন জমা নিয়েছি।’
আয়কর মেলায় ছয় দিনে রাজস্ব আয়ের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮৯৯ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। এক্ষেত্রে প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক শূণ্য ৪ শতাংশ।গতকাল পর্যন্ত ই-টিআইএন নিয়েছেন ৩২ হাজার করদাতা।রিটার্ন দিয়েছেন ৪ লাখ ১২ হাজার ১৯৬ জন। সব মিলিয়ে কর সেবা নিয়েছেন ১৩ লাখ ৭৫ হাজার ৯৩৯ জন।এদিকে এবারের মেলা থেকে রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ ২ হাজার ৪০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে আশা করছে রাজস্ব কর্মকর্তারা
মেলায় নতুন কর সনাক্তকরণ নম্বর (ই-টিআইএন) নেয়াসহ কর সংক্রান্ত সব সেবা মিলছে। মুক্তিযোদ্ধা,প্রবীণ ও নারীদের জন্য আলাদা বুথসহ বাড়তি সুবিধা হিসেবে যাতায়াতের জন্য আছে শাটল বাসের ব্যবস্থা। বাসগুলো চলছে রাজধানীর টিএসসি,রামপুরা,বেইলি রোড,মতিঝিল,মিরপুর ও উত্তরা রোডে।
শুরু থেকেই মেলার সময় বৃদ্ধির আবেদন জানিয়ে আসছিল করদাতারা। তবে মেলার সময় বৃদ্ধি না করলেও করদাতাদের সুবিধার্থে যতক্ষণ করদাতারা মেলায় উপস্থিত থাকবেন ততক্ষণ কর সেবা ও রিটার্ন দাখিলের সুযোগ পাচ্ছেন।
কোন হয়রানি ছাড়া একই ছাদের নিচে সব সেবা পেয়ে খুশি করদাতারা। তাদের চোখেমুখে খুশি আর গর্বের ছাপ লক্ষ্য করা গেছে।
রাজধানী ঢাকাসহ সকল বিভাগীয় শহরে ৭ দিন, ৫৬ টি জেলা শহরে ৪ দিন,৩২টি উপজেলায় ২ দিন এবং ৭০টি উপজেলায় ১ দিনব্যাপী আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
মেলায় এবার বাড়তি সংযোজন হিসেবে ছিল অডিও ভিজ্যুয়াল পদ্ধতিতে কর শিক্ষণ। এর মাধ্যমে করদাতারা আধুনিক পদ্ধতিতে কর সংক্রান্ত সব ধরণের সেবা জানতে পারছেন। এছাড়া সাত দিনে সাতটি স্কুল বা বিশ্ববিদ্যালিয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয় শিক্ষণ ফোরামে। আজ নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কর শিক্ষনে অংশগ্রহণ করে।

image_printPrint