বিদ্যুতের ৭২.৮১ লাখ স্মার্ট প্রিপেইড মিটার স্থাপনের পরিকল্পনা

611

ঢাকা, ১০ নভেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : সরকার সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার আওতায় বিভিন্ন বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানির মাধ্যমে সারা দেশে ৭২ লাখ ৮১ হাজার স্মার্ট প্রিপেইড মিটার স্থাপনের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে।
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ আজ বাসসকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার সিস্টেম লস হ্রাস ও সহজতর সেবা নিশ্চিত করার মাধ্যমে লোড ব্যবস্থাপনা উন্নত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ঢাকা বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি লিমিটেড (ডিপিডিসি) ১২ লাখ স্মার্ট প্রিপেইড মিটার স্থাপনের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘ডিপিডিসি ইতোমধ্যে প্রায় দুই লাখ ৭২ হাজার ৩১৯টি প্রিপেইড মিটার স্থাপন করেছে এবং আরো এক লাখ ১৫ হাজার ১৮১টি স্মার্ট প্রিপেইড মিটার স্থাপনের প্রক্রিয়া চলছে।’
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ডিপিডিসি ২০২১ সালের ৩০ জুন নাগাদ সাড়ে ছয় লাখ স্মার্ট প্রিপেইড মিটার স্থাপন করবে এবং যে কোনো সময় স্থাপনের জন্য দুই লাখ মিটার মজুদ করবে।’
প্রকল্প বিবরণী অনুযায়ী, জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) সাড়ে ছয় লাখ প্রিপেইড মিটার স্থাপন এবং ২০১৮ সাালের জুলাই থেকে ২০২১ সালের জুনের মধ্যে দুই লাখ স্মার্ট প্রিপেইড মিটার আনার জন্যে ৬৫৭.৯৫ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন করেছে।
সরকার বড় উদ্যোগের মাধ্যমে রাজধানীর অধিকাংশ স্থান এবং সংলগ্ন নারায়ণগঞ্জ জেলা স্মার্ট প্রিপেইড মিটারের আওতায় নিয়ে আসবে। এ প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে সিস্টেম লস উল্লেখযোগ্য হারে কমবে বলে আশা করা হচ্ছে।
এছাড়া, রাষ্ট্রায়ত্ত ডিপিডিসি’র সেবার মান আরো বাড়ানো হবে। উন্নত মূল্যায়নের ফলে লোড ব্যবস্থাপনা আরো সহজ হবে।
বর্তমানে ডিপিডিসি প্রায় ১১ লাখ ৭৬ হাজার গ্রাহককে সেবা দিচ্ছে। আর বিদ্যুতের সর্বোচ্চ চাহিদা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৫৫১.৩০ মেগাওয়াট।
কর্মকর্তারা জানান, এ প্রকল্পটি সফলভাবে বাস্তবায়ন করতে পারলে সরকারের পক্ষে রাজধানীর প্রায় সকল এলাকা প্রিপেইড মিটারের আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হবে।

image_printPrint