বাসস দেশ-৩৫ : সন্ত্রাস আর আগ্রাসী বন্যা কেড়ে নিল ফরাসী নারীর স্বামী-মাতা-পিতাকে

বাসস দেশ-৩৫
ফ্রান্স-বন্যা- হামলা
সন্ত্রাস আর আগ্রাসী বন্যা কেড়ে নিল ফরাসী নারীর স্বামী-মাতা-পিতাকে
প্যারিস, ১৬ অক্টোবর, ২০১৮(বাসস ডেস্ক) : চলতি বছরের গোড়ার দিকে ফ্রান্সে জিহাদিদের ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ক্ষত না শুকাতেই ভয়াবহ বন্যায় তলিয়ে গেল ট্রিবে নগরী। দুর্যোগ কবলিত ওই নগরীর এক নারী সন্ত্রাসী হামলায় তার স্বামীকে হারানোর পর, বন্যায় হারালো তার পিতা-মাতাকে। মঙ্গলবার পরপর ঘটে যাওয়া নগরীর এই দুই আতংকের কথা জানালেন দেশটির কর্মকর্তারা । খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।
মার্চ মাসে ঘুমন্ত ট্রিবে নগরীতে বন্দুকধারীরা স্থানীয় এক শপিংমলে হামলা চালালে চার ব্যাক্তি নিহত হন। ঘটনাস্থলে একজন পুলিশ কর্মকর্তার উপস্থিতিতে ৪৪ বছর বয়সী আরনওড বেলট্রাম নামে এক ব্যক্তি বন্দুকধারীর হাতে নিজের জীবন দিয়ে এক হোস্টেজের জীবন রক্ষা করে। ওই ঘটনায় তখন বিশব্যাপী তোলপাড় হয়। এর সাত মাস পর, আরো অনেক বড় বড় মলের মতো সুপার ইউ সুপার মার্কেটও ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়ে। দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলীয় ফ্রান্সের কারকাসন নগরীতে রোববার রাতে ভয়াবহ এই দুর্যোগ নেমে আসে। এতে অডি এলাকায় কমপক্ষে ১১ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে ও নিখোঁজ হয়েছে আরো তিন ব্যক্তি। ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে নদীগুলো দীর্ঘ স্থায়ীভাবে খড়¯্রােতা হয়ে উঠে। এতে করে রাস্তাঘাট, সেতুসমূহ ও বাড়িঘর ভেসে গেছে।
মঙ্গলবার স্থানীয় কর্মকর্তা ও প্রতিবেশীরা এএফপিকে জানান, ট্রিবের এক নারী এই সন্ত্রাস আর বন্যার থাবায় শোকে মুহ্যমান হয়ে আছেন। তার ৬১ বছর বয়সী স্বামী জিন মাযিয়েরস জিহাদিদের থেমে থাকা একটি গাড়ির ভেতর থেকে নিক্ষিপ্ত এলোপাথাড়ি গুলি চলাকালীন গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন। পরবর্তিতে ওই নারী হারান তার বৃদ্ধ পিতামাতাকে যাদের বয়স ছিল ৮০’র কোঠায়।
ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিবেশী ভেলেরিয়ে পুয়েরতা বলেন, ‘এটি অত্যন্ত যন্ত্রণাকর যে, বিধবা নারীটি তার পিতামাতা উভয়কেই হারিয়েছেন।’
বাসস/জেজেড/২২০০/কেএমকে