পলিথিন বন্ধে বিকল্প উপকরণ সহজলভ্য করার পরামর্শ

173

ঢাকা, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ (বাসস) : পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর পলিথিন ব্যবহার বন্ধে এর বিকল্প উপকরণ সহজলভ্য করতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।
কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ হাছান মাহমুদের সভাপতিত্বে আজ সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় এ জন্য এনফোর্সমেন্টের পাশাপাশি জনসচেতনা বাড়ানো, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির বিধানে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়ারও পরামর্শ দেয়া হয়।
কমিটির সদস্য পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, নবী নেওয়াজ, মোঃ ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী, মোঃ ইয়াসি আলী এবং মেরিনা রহমান সভায় অংশগ্রহণ করেন।
সভায় পরিবেশ নিয়ন্ত্রণ আইন ও বিধিমালায় বর্ণিত বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান বা দ্রব্যাদির (সবুজ বা হলুদ বা কমলা অথবা ক, খ, গ শ্রেণী) ক্যাটাগরী নির্ধারনের মানদন্ড নিয়ে আলোচনা করা হয়।
এছাড়া সিলেটের তামাবিল, জাফলংসহ অন্যান্য অঞ্চলে অবৈধ পাথর উত্তোলনের কারণে সৃষ্ট পরিবেশ বিপর্যয়, সাভারে চামড়া শিল্প কারখানা স্থাপনের কারণে সেখানকার চামড়া শিল্পজাত বর্জ্য তুরাগ, বালু ও ধলেশ^রী নদীর পানিসহ সার্বিক পরিবেশ বিনষ্ট ও গৃহীত ব্যবস্থা সম্পর্কে সবায় বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।
সভায় অবৈধ পলিথিন বন্ধে এনফোর্সমেন্টের পাশাপাশি জনসচেতনা বাড়ানো, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির বিধানে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়।
সভায় পলিথিনের ব্যবহারের ক্ষতিকারক দিক তুলে ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ অন্যান্য গণমাধ্যমে প্রচারের সুপারিশ করা হয়। এ ব্যাপারে জনসচেতনতে গড়ে তুলতে একটি পক্ষ পালনেরও সুপারিশ করা হয়।
সভায় পর্যটন এলাকার আকর্ষন বজায় রাখতে এবং বন ও পরিবেশের ক্ষতি এড়ানোর জন্য জাফলং এলাকা থেকে দূরে কোথাও পাথর ক্রাশিং জোন স্থাপনের পরামর্শ দেয়া হয়।
এছাড়া সভায় সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৩য় রিপোর্ট জাতীয় সংসদের আগামী অধিবেশনে উপস্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় ও সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

image_printPrint