সরকার জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়কে অগ্রাধিকার ইস্যু হিসেবে গ্রহণ করেছে : আনিসুল ইসলাম মাহমুদ

ঢাকা, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেছেন, সরকার জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টিকে অত্যন্ত অগ্রাধিকার ইস্যু হিসেবে গ্রহণ করেছে।
তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত সমস্যা সমাধানে শুধু সবুজ জলবায়ু তহবিলের (জিসিএফ) ওপর নির্ভর না করে সরকার নিজেদের অর্থায়নেই ট্রাস্ট ফান্ড গঠন করেছে।
রাজধানির বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘জলবায়ু অর্থায়ন ও সুশাসন বিষয়ে ইন্টেগ্রিটি ডায়ালগ-৩ : সবুজ জলবায়ু তহবিলে ন্যায্যতা ও স্বচ্ছতা’ শিরোনামে অনুষ্ঠিত সংলাপের সমাপনি অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) জলবায়ু বিষয়ক দিনব্যাপী এই আন্তর্জাতিক সংলাপের আয়োজন করে। সমাপনি অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। সংলাপে নেপাল, কোরিয়া, জার্মানি, ভুটান, অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশ থেকে বিশেষজ্ঞগণ অংশগ্রহণ করেন।
জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় ২০১৬ ও ২০১৭ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত সংলাপের ধারাবাহিকতায় এবারের সংলাপে সবুজ জলবায়ু তহবিল থেকে জলবায়ু পরবর্তনে সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর জন্য তহবিল নিশ্চিত ও প্রবাহে স্বচ্ছতা, ন্যায্যতা নিশ্চিত; সবুজ জলবায়ু তহবিলে প্রবেশাধিকার ও সুষ্ঠু ব্যবহার নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় সুশাসনের মানদ- বিবেচনায় আলোচনার মাধ্যমে ঐকমত্যে পৌঁছানো ও আলোচনালব্ধ জ্ঞান বিনিময় করাই ছিল এ সংলাপ আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য।
মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ আরও বলেন, জলবায়ু অভিযোজন বিষয়টিকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে সরকার এটিকে সম্প্রতি গৃহীত ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ তে অন্তর্ভুক্ত করেছে।
তিনি সবুজ জলবায়ু তহবিল থেকে জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর অর্থ প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বিদ্যমান জটিল প্রক্রিয়াকে সহজীকরণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
অনুষ্ঠানের সম্মানিত অতিথি বাংলাদেশের মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের কার্যালয় (সিএজি) এর ডেপুটি মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন জলবায়ু অভিযোজন প্রকল্পসমূহে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা এবং শুদ্ধাচারের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
‘সবুজ জলবায়ু তহবিল সংগ্রহে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও শুদ্ধাচার: চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক প্রথম অধিবেশনে পরিবেশ অধিদপ্তরের জলবায়ু পরিবর্তন ও আন্তর্জাকি চুক্তি বিষয়ক পরিচালক মির্জা শওকত আলীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠানের (স্পারসো) চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান, অস্ট্রেলিয়ার গ্রিফিথ বিশ^বিদ্যালয়ের গ্রিফিথ ক্লাইমেট চেইঞ্জ রেসপন্স প্রোগ্রামের রিসার্স ফেলো ড. এডওয়ার্ড মর্গেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক ও এলডিসি বিষয়ক বাংলাদেশ ডেলিগেশনের সমন্বয়ক মো. জিয়াউল হক এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের উপসচিব নূর আহমেদ।
উল্লেখ্য, টিআইবি’র উদ্যোগে ইতিপূর্বে ২০১৬ এর ২৯ মার্চ ও ২০১৭ সালের ১৮-১৯ সেপ্টেম্বর জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসন বিষয়ে ‘ঢাকা ইন্টেগ্রিটি ডায়ালগ-১’ ও ‘ঢাকা ইন্টেগ্রিটি ডায়ালগ ২’ অনুষ্ঠিত হয়।