সংসদে কৃষি বিপণন বিল, ২০১৮ পাস

144

সংসদ ভবন, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : কৃষক, উৎপাদক, কৃষি ব্যবসায়ী ও ভোক্তা সহায়ক, কৃষি বিপণন ব্যবস্থার উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে সুনির্দিষ্ট বিধান করে আজ সংসদে কৃষি বিপণন বিল, ২০১৮ পাস করা হয়েছে।
কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন।
বিলে বলা হয়, আপাতত বলবৎ অন্য কোন আইনে যা কিছু থাকুক না কেন বিলের বিধানাবলী প্রাধান্য পাবে।
বিলে কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের কার্যাবলী প্রজ্ঞাপিত বাজার ঘোষণা, লাইসেন্স ব্যবস্থাপনা, গুদাম ও হিমাগারের লাইসেন্স, রপ্তানিকারক, আমদানিকারকের লাইসেন্স গ্রহণ, লাইসেন্সের মেয়াদ, নবায়ন ও ফি, লাইসেন্স হস্তান্তর নিষিদ্ধ, লাইসেন্স স্থগিত ও বাতিল, মজুদ পণ্যের সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা, আপৎকালীন পণ্য সরবরাহ, লাইসেন্স প্রদর্শনসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়েছে।
বিলে জাতীয় কৃষি বিপণন সমন্বয় কমিটি, জেলা কৃষি বিপণন সমন্বয় কমিটি, উপজেলা কৃষি বিপণন সমন্বয় কমিটি ও বাজার ভিত্তিক ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনের বিধান করা হয়েছে।
বিলে প্রজ্ঞাপিত শস্য ঘোষণা, মার্কেট চার্জ ও ভাড়া নির্ধারণ, বাজার তথ্য, অন্যান্য কর্তৃপক্ষের সহায়তা গ্রহণসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিধান করা হয়েছে।
বিলে উল্লেখিত বিধান লংঘনে অপরাধ ও দন্ডের সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়েছে।
এছাড়া বিলে বিরোধ মীমাংসা, বিচার, আপিল, অপরাধ আমল যোগ্যতা ও জামিন যোগ্যতা, তদন্ত ও বিচার পদ্ধতি, মোবাইল কোর্টের এখতিয়ার, বিধি-প্রবিধি প্রণয়নের ক্ষমতা, তফসিল সংশোধনসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিধান করা হয়েছে।
বিলে তফসিল-১ ও ২-এ খাদ্যশস্য, অর্থকরী শস্য, ডাল ও কালাই, তেল বীজ ও তেল, ইক্ষু এবং ফল, ফুল, শাক-সবজি, পশু, পশুজাত পণ্য, মাছ, মসলা, অন্যান্য কৃষিজাত পণ্য, প্রক্রিয়াজাত কৃষিপণ্য, বীজ, সার, বালাইনাশক, বাচ্চা, খাদ্য জাতীয় উপকরণ, কৃষি যন্ত্রপাতির নাম সংযোজন করা হয়েছে।
জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম, নূরুল ইসলাম মিলন, শামীম হায়দার পাটোয়ারি ও বেগম রওশন আরা মান্নান বিলের ওপর জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাব আনলে তা কন্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।

image_printPrint