হ্যাজার্ডের হ্যাটট্রিকে কার্ডিফ সিটিকে ৪-১ গোলে পরাজিত করেছে চেলসি

141

লন্ডন, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : শনিবার কার্ডিফ সিটিকে ৪-১ গোলে পরাজিত করে লিভারপুলকে হটিয়ে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে চেলসি। ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছেন ইডেন হ্যাজার্ড। অন্য গোলটি এসেছে উইলিয়ানের কাছ থেকে।
যদিও সোল বামবার ১৬ মিনিটের গোলে ম্যাচে এগিয়ে গিয়েছিল কার্ডিফ। কিন্তু বেলজিয়ান তারকার কল্যাণে বেশীদুর যেতে পারেনি সফরকারীরা। স্ট্যামফোর্ড ব্রীজে ম্যাচের ৩৭ মিনিটে সমতা ফেরানোর পর বিরতির ঠিক আগে চেলসিকে এগিয়ে দেন হ্যাজার্ড। ৮০ মিনিটে স্পট কিক থেকে চেলসিকে মৌসুমে দারুন এক জয় উপহার দেন বেলজিয়ামের এই বিশ^কাপ তারকা। সাথে পূরণ করেন মৌসুমের প্রথম হ্যাটট্রিক। ৮৩ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান তারকা উইলিয়ানের গোলে মরিজিও সারির দলের বড় জয় নিশ্চিত হয়। ইন-ফর্ম হ্যাজার্ডের গোলেই মূলত চেলসির তিন পয়েন্ট নিশ্চিত হয়েছিল। তবে উইলিয়ানের গোলে ব্যবধান বেড়েছে। সেই সাথে পাঁচ ম্যাচে শতভাগ সাফল্য নিয়ে পূর্ণ ১৫ পয়েন্টসহ গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে লিভারপুলকে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে পাঠিয়েছে ব্লুজরা।
ম্যাচের ১৬ মিনিটে ডিফেন্সিভ পার্টনার সিন মরিসনের সহায়তায় বামবা স্বাগতিক দর্শকদের হতবাক করে কার্ডিফ সিটিকে এগিয়ে দেন। মাতেও কোভাচিচকে দুইবার হতাশ করেছেন গোলরক্ষক নিল ইথারিজ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর হ্যাজার্ডকে আটকাতে পারেননি। সাত মিনিটের মধ্যে অলিভার জিরুর দুটি সহায়তায় হ্যাজার্ড স্বাগতিক দর্শকদের মনে স্বস্তি ফিরিয়ে আনেন। এরপর ৮০ মিনিটে স্পট কিক থেকে হ্যাজার্ড হ্যাটট্রিক পূরণ করেন। বামবার বিরুদ্ধে ফাউলের অপরাধে রেফারি পেনাল্টির নির্দেশ দেন। তিন মিনিট পরে বদলী খেলোয়াড় উইলিয়ানের গোল চেলসিকে বড় জয়ে সহায়তা করেছে।
আর্সেনাল ও নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের ম্যাচগুলো থেকে কাল যেন ঘরের মাঠে ভিন্ন এক পরিস্থিতির শিকার হয়েছির চেলসি। বিশেষ করে প্রথমবারের মত ম্যাচে পিছিয়ে পড়ে অনেকটাই খেই হারিয়ে ফেলেছিল সারি শিষ্যরা। তবে তারপরেও এই ধরনের জয়ে দলের আত্মবিশ^াস অনেকটাই বেড়ে গেছে। নিজে গোল করতে না পারলেও হ্যাজার্ডের প্রথম দুটি গোল সহায়তা করে ঠিকই স্কোরশিটে নাম লিখিয়েছেন জিরু।
২০০৫-০৬, ২০০৯-১০ ও ২০১০-১১ মৌসুমের পর এই নিয়ে চতুর্থবারের মত চেলসি প্রিমিয়ার লিগ মৌসুমের প্রথম পাঁচটি ম্যাচের সবকটিতেই জয় ছিনিয়ে নিল। অন্যদিকে ১৯২১-২২ মৌসুমের পর এই প্রথমবারের মত কার্ডিফ লিগের প্রথম পাঁচটি ম্যাচের একটিতেও জয়ী হতে পারলো না। এই নিয়ে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় টানা সাত ম্যাচ জয়বিহীন থাকলো কার্ডিফ।
এদিকে সেন্ট জেমস পার্কে দ্বিতীয়ার্ধের দুই গোলে নিউক্যাসেল ইউনাইটেডকে ২-১ গোলে পরাজিত করেছে আর্সেনাল। ৪৯ মিনিটে৩০ গজ দুর থেকে গ্রানিট জাকার ফ্রি-কিকে এগিয়ে যায় আর্সেনাল। নয় মিনিট পরে ব্যবধান দ্বিগুন করেন জার্মান তারকা মেসুত ওজিল। ইনজুরি টাইমে হেড থেকে এক গোল পরিশোধ করেন কিয়ারান ক্লার্ক। কিন্তু এই গোল ম্যাচে ফিরে আসার জন্য যথেষ্ঠ ছিলনা।
লিওরে সানের ম্যাচ শুরুর দুই মিনিটের গোলে ফুলহ্যামকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। লিগে এই প্রথমবার সানে মূল একাদশে খেলতে নেমেছিলেন। নিউক্যাসেলের বিপক্ষে ম্যাচে পেপ গার্দিওলার বিবেচনায় আসতে না পারা সানে ১০২ সেকেন্ডের মধ্যে গোল করে সিটিজেনদের এগিয়ে দেন। ফার্নান্দিনহোর ক্রস থেকে সানে ফুলহ্যাম গোলরক্ষক মার্কোস বেটিনেলিকে বোকা বানান। ২১ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন ডেভিড সিলভা। এটি ছিল ৩৫০তম ম্যাচে সিলভার ৫০তম লিগ গোল। ৪৭ মিনিটে সার্জিও আগুয়েরোর ক্রস থেকে মৌসুমের তৃতীয় গোল করে সিটিকে বড় জয় উপহার দেন রাহিম স্টার্লিং।
রায়ান ফ্রেসারের প্রথমার্ধের দুই গোলে ১০জনের লিস্টার সিটিকে ৪-২ গোলে পরাজিত করেছে বোর্নেমাউথ। কিংসের সহায়তায় ১৯ মিনিটে ফ্রেসার প্রথম গোল করে দলকে এগিয়ে দেন। ৩৭ মিনিটে ক্যালাম উইলসনের সহায়তায় তিনি ব্যবধান দ্বিগুন করেন। ৪১ মিনিটে স্পট কিক থেকে কাসপার শিমিচেলকে উল্টো দিকে পাঠিয়ে দলের ব্যবধার আরো বাড়ান কিং। রিকার্ডো পেরেরার ডি বক্সের ভিতর হ্যান্ডবলে পেনাল্টি পেয়েছিল বোর্নেমাউথ। ৬৮ মিনিটেএডাম স্মিথকে ফাউলের অপরাধে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পেয়ে মাঠ ত্যাগ করেন ওয়েস মরগ্যান। ৮১ মিনিটে ফ্রেসারের সহযোগিতায় এই স্মিথই দলের পক্ষে চতুর্থ গোলটি করেন। তবে ৮৮ মিনিটে পেনাল্টি থেকে জেমস ম্যাডিসন ও ৮৯ মিনিটে মার্ক অলব্রাইটন দ্বিতীয় গোল করায় লিস্টার সিটি ব্যবধানই শুধূ কমিয়েছে।

image_printPrint