সংসদে বস্ত্র বিল, ২০১৮ পাস

সংসদ ভবন, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ (বাসস) : অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণ, রপ্তানি বৃদ্ধি,ব্যাপক কর্মসংস্থানের সৃষ্টির মাধ্যমে বস্ত্র খাতের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় বিধান করে আজ সংসদে বস্ত্র বিল, ২০১৮ পাস হয়েছে।
বস্ত্র ও পাট মন্ত্রীর পক্ষে প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন।
বিলে বস্ত্র অধিদপ্তরের কার্যাবলী, বস্ত্রখাতে বিনিয়োগ, উন্নয়ন, বিপণন, পরিবহন, জাহাজিকরণ, তদারকি ও সহায়তা প্রদানের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়েছে।
বিলে রাষ্ট্রায়ত্ত মিলসমূহের ব্যবস্থাপনা, তদারকি ও আধুনিকায়ন করা এবং এ ক্ষেত্রে জি টু জিসহ বেসরকারি বিনিয়োগের সুযোগ রাখার বিধান করা হয়েছে।
বিলে বস্ত্র শিল্পের নিবন্ধন, পরীক্ষাগার স্থাপন, তথ্য ভান্ডার প্রতিষ্ঠা ও তথ্য সংরক্ষণসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিধান করা হয়।
বিলে উৎপাদন উপকরণের মান নিয়ন্ত্রণ,তদারকি ও সমন্বয়, কাঁচামাল আমদানি ও রপ্তানি, নিরাপত্তা ও কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার বিধান রাখা হয়েছে।
বিলে দক্ষ জনবল সৃষ্টি, মানব সম্পদ উন্নয়নের লক্ষ্যে বিদ্যমান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের পাশাপাশি নতুন বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ, ডিপ্লোমা ও ভোকেশনাল ইনস্টিটিউট, ফ্যাশন ইনস্টিটিউট ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের বিধান করা হয়েছে।
এছাড়া বস্ত্র খাতের প্রসার ও উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রণোদনা, গবেষণা, পরিদর্শন প্রবর্তনের বিধান করা হয়েছে।
জাতীয় পার্টির আব্দুল মুনিম চৌধুরী, নূরুল ইসলাম ওমর, ফখরুল ইমাম, বেগম রওশন আরা মান্নান, বেগম নূর-ই-হাসনা লিলি চৌধুরী বিলের ওপর জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাব আনলে তা কন্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।