মালদ্বীপের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করল শ্রীলংকা

95

ঢাকা, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ (বাসস) : প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে ২-০ গোলে হারের পর গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে শক্তিশালী মালদ্বীপকে রুখে দিয়ে এক পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে শ্রীলংকা। আজ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত সাফ সুজুকি কাপের বি গ্রুপের ম্যাচে গোলশূন্য ড্র হয়েছে মালদ্বীপ ও শ্রীলংকার ম্যাচটি। ফলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে গেছে গ্রুপের বাকি দল ভারতের।
অপরদিকে ড্র করে পয়েন্ট পাওয়া সত্ত্বেও এখনো পর্যন্ত পয়েন্ট তালিকার তলানীতেই রয়ে গেছে শ্রীলংকা। কারণ তাদের নির্ধারিত দুটি ম্যাচ হয়ে গেলেও একটি করে ম্যাচ হাতে রয়েছে ভারত ও মালদ্বীপের।
ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে ছিল মালদ্বীপ। শুরুর প্রথম ১০ মিনিটের মধ্যে অন্তত তিনটি ঝটিকা আক্রমণ পরিচালনা করে পিটার হারভাসকোর শিষ্যরা। ম্যাচের ১৫তম মিনিটে ডিবক্সের বাইরে থেকে মালদ্বীপের ফরোয়ার্ড আলী ফাসিরের ফ্রি কিকের বাঁকানো শট ফিরে আসে গোলবারে লেগে। ৫ মিনিট পর লংকান ডি বক্সের বাইরে ফের ফ্রি কিক পায় মালদ্বীপ। অধিনায়ক আকরাম আবদুল ঘানির ফ্রি কিকের বল ফিস্ট করেন লংকান গোল রক্ষক সুজান পেরেইরা।
২২তম মিনিটে প্রতি আক্রমন থেকে গোলই করে বসে শ্রীলংকা। ডিফেন্ডার ডাকসন পুসলাসের আড়াআড়িভাবে বাড়িয়ে দেয়া বল আলতো টোকায় মালদ্বীপের জালে জড়িয়ে দেন লংকান স্ট্রাইকার আসেলা মাদুসান। তবে এর আগমুহুর্তেই উঠে যায় কর্তবরত লাইনম্যানের ঝান্ডা। ফলে অফসাইডের ফাঁদে পড়ে বাতিল হয় গোল।
২৬তম মিনিটে একেবারেই ফাঁকায় বল পেয়ে মালদ্বীপকে লীড এনে দিতে ব্যর্থ হয়েছেন স্ট্রাইকার হাসান নিয়াজ। তিনি বলে শট নেবার মুহূর্তেই ঝাঁপিয়ে পড়ে বলটি আটকে দেন লংকান গোল রক্ষক সুজান। প্রথমার্ধের বাকী সময় দল দুটি কাটিয়েছে ছন্নছাড়া লক্ষ্যভ্রস্ট আক্রমণ ও প্রতি আক্রমনের মাধ্যমে।
প্রথমার্ধে মালদ্বীপের আধিপত্য থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধের আধিপত্য ছিল শ্রীলংকার। এ সময় একাধিক নিশ্চিত গোল থেকে বঞ্চিত হয় লংকানরা। ওই অর্ধে লংকানরা আধিপত্য বিস্তার করলেও প্রতি আক্রমণ থেকে প্রথম সুযোগটি অবশ্য পেয়েছিল মালদ্বীপ। ৫৬তম মিনিটে সতীর্থের আড়াআড়ি পাস থেকে একেবারেই লংকান গোলপোস্টের সামনে পাওয়া বলে পা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন মিডফিল্ডার মোহাম্মদ ইরফান।
এরপর শুরু হয় লংকান ঝড়। ৬৫, ৬৬ এবং ৮১ তম মিনিটে তিনটি নিশ্চিত গোল থেকে বঞ্চিত হয় শ্রীলংকা। ৬৫তম মিনিটে মালদ্বীপের ডি বক্সের বাইরে থেকে স্ট্রাইকার আশিকুর রহমানের আচমকো দূর পাল্লার জোড়ালো শটের বলটি বাঁ দিকে ঝাপিয়ে পড়ে গ্রীবে পুরে নেন মালদ্বীপের গোল রক্ষক মোহাম্মদ ফয়সাল। পরের মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে ফের নীচু শট নেন লংকান মিডফিল্ডার দিলান ডি সিলভা। এবারো ঝাপিয়ে পড়ে বলটির নিয়ন্ত্রণ নেন মালদ্বীপের গোল রক্ষক। ৮১তম মিনিটে দুই দফা শট নিয়ে মালদ্বীপের গোল রক্ষককে পরাস্ত করতে পারেনি লংকান দুই খেলোয়াড় আসিলা মাদুসান ও কাভিন্দু ইসান। ডি বক্সের ভেতর থেকেই মাদুসানের জোরালো শটটি ফয়সাল ফিস্ট করার পর ফিরতি বলে শট নেন ইসান। এবারো বলটি ফিরিয়ে দেন মালদ্বীপের গোল রক্ষক।
৮৫তম মিনিটে মালদ্বীপ অবশ্য গোল করেছে। তবে সেটিও অফসাইটের কারণে বাতিল হয়। এর দুই মিনিট আগে লংকান বদলি খেলোয়াড় মোহাম্মদ রিফনাজ মধ্যমাঠ থেকে একক প্রচেষ্টায় মালদ্বীপ ডি বক্সে ঢুকে দুই জন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে শট নিলে সেটি কর্নারের বিনিময়ে প্রতিহত করেন মালদ্বীপের গোল রক্ষক। অতিরিক্ত ৫ মিনিটেও গোল করতে পারেনি কোন দল। ফলে গোলশূন্য ড্র হয় ম্যাচটি।

image_printPrint