সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের বিষয় যুক্ত করে আরপিও সংশোধনের সিদ্ধান্ত

92
image_printPrint

ঢাকা, ৩০ আগস্ট, ২০১৮ (বাসস) : জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের বিষয়টি যুক্ত করে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২ (আরপিও) সংশোধনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে আজ নির্বাচন কমিশনের ৩৫তম সভা শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) খান মো. নুরুল হুদা সাংবাদিকদের কথা জানান।
সিইসি বলেন, “স্থানীয় সরকার নির্বাচনে (ইভিএম ব্যবহার করে) ভালো ফল পেয়েছি। সংসদ নির্বাচন যাতে তা ব্যবহার করা যায় সে প্রস্তুতি নিতেই আমরা আইন সংশোধনের প্রস্তাব করেছি। আগামী নির্বাচনে ইভিএম যে ব্যবহার করবোই এ বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। পরিবেশ পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে তখন কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।”
নুরুল হুদা বলেন, নির্বাচনের সময় যদি প্রয়োজন হয় সেই মুহূর্তে যাতে ইভিএম ব্যবহার করতে করা যায় এ জন্য নির্বাচন কমিশন আইনী প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে।
তিনি বলেন, কয়েক দিনের মধ্যেই আরপিও সংশোধন প্রস্তাবটি আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। মন্ত্রণালয়ের প্রক্রিয়া অনুয়ায়ী তা সংসদে উত্থাপন করা হবে। আইন পাস হলে সারাদেশে ইভিএম প্রদর্শনী হবে। এ বিষয়েও কমিশন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেখানে স্টেক হোল্ডাররা এর ব্যবহার সম্পর্কে জানবেন এবং মতামত দেবেন।
এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, কমিশন মোটেও তড়িগড়ি করে ইভিএম-এর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিচ্ছে না। ২০১০ সাল থেকেই এই পদ্ধতি চালু ছিল, মাঝেখানে বন্ধ ছিল। কমিশন এর ফলাফল জানার জন্য পরীক্ষামূলকভাবে সীমিত আকারে বিভিন্ন স্থানীয় নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করে দেখেছে।
তিনি বলেন “এখানে কমিশনের মূল্যায়ন হচ্ছে- যেখানে ভাল ফল পাওয়া গেছে, ভোটারসহ সংশ্লিষ্টরা স্বতস্ফুর্তভাবে বলেছে এটা ভাল পদ্ধতি,”।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, “একজন কমিশনার এ বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করেছেন, আমরা চারজন কমিশনার সম্মত হয়েছি যে এটাতে পরিবর্তন আনলে ভাল হবে।”
এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের জন্য আরপিও সংশোধনের সিদ্ধান্তে ভিন্নমত পোষণ করে ‘নোট অব ডিসেন্ট’ দিয়ে সভা ত্যাগ করেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।
আরপিও সংশোধন বিষয়ে এর আগে গত ২৬ আগস্ট সকাল ১০টায় কমিশনের সভা হয়। আজ কমিশনের মূলতবি সভা বসে সকাল ১১টায়।