দুই বাসের চাপায় হাত হারানো রাজীব হোসেন মারা গেছেন

88

ঢাকা, ১৭ এপ্রিল, ২০১৭ (বাসস) : রাজীব হোসেন গতকাল রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন।
দুই বাসের চাপায় হাত হারানো রাজীব হোসেন সোমবার দিবাগত রাত ১২টা ৪০ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রভাষক প্রদীপ বিশ্বাস আজ সাংবাদিকদের জানান, অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারণে রাজিবের মৃত্যু হয়।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বাসসকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।
রাজীবের ছোট ভাই মেহেদী হাসান বাসসকে জানান, রাজীব হোসেনের মরদেহ পটুয়াখালীতে তার নানার গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হবে।
তিনি বলেন, আজ সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাজীবের মরদেহ ময়না তদন্ত করা হয়। ময়না তদন্ত শেষে সোমবার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে একটি এম্বুলেন্সে করে মরদেহ নিয়ে পটুয়াখালীর বাউফলের দাসপাড়া নানার বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেয়া হয়।
রাজীব রাজধানীর মহাখালীর সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতক (বাণিজ্য) তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। ছেলেবেলায় বাবা-মা হারানো রাজীব তিন ভাইয়ের মধ্যে সবার বড়।
গত ৩ এপ্রিল রাজধানীর কাওরান বাজারের সার্ক ফোয়ারার কাছে বিআরটিসির একটি দ্বিতল বাসের পেছনের ফটকে দাঁড়িয়ে গন্তব্যে যাচ্ছিলেন রাজীব। বাসটি হোটেল সোনারগাঁওয়ের বিপরীতে পান্থকুঞ্জ পার্কের সামনে পৌঁছলে হঠাৎ পেছন থেকে স্বজন পরিবহনের একটি বাস বিআরটিসির বাসটিকে গা ঘেঁষে অতিক্রম করতে থাকে। এ সময় দুই বাসের চাপে গাড়ির পেছনে দাঁড়িয়ে থাকা রাজীবের ডান হাত কনুইয়ের ওপর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

image_printPrint