ম্যানচেস্টার সিটির জয়ের রাতে ব্যর্থ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

69
image_printPrint

লন্ডন, ২০ আগস্ট ২০১৮ (বাসস/এএফপি) : লীগ মৌসুম শুরুর আগেই নিজ ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশংকা প্রকাশ করেছিলেন কোচ হোসে মরিনহো। কিন্তু তার সেই আশংকা যে এত দ্রুত বাস্তবায়িত হবে তা কেউ ভাবতে পারেনি। রোববার লীগের সূচনা লগ্নেই পরাজয় দেখল প্রিমিয়ার লীগের জায়ান্ট ক্লাবটি। ব্রাইটনের কাছে ৩-২ গোলে হেরে গেছে তারা। এর আগে অনুষ্ঠিত লীগের আরেক ম্যাচে হাডার্সফিল্ডকে ৬-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে বিধ্বস্ত করে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে গেছে তাদের নগর প্রতিদ্বন্দ্বি ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি।
শুরুতেই ইউনাইটেডের এমন বিপর্যয়, শংকার মধ্যে ফেলে দিয়েছে কোচ হোসে মরিনহোর ভাবিষ্যৎকেও। মৌসুমটি তিনি শেষ করতে পারবেন কিনা সেটি নিয়েই শুরু হয়েছে কানাঘুষা। এর আগে রিয়াল মাদ্রিদে চুক্তির তৃতীয় মেয়াদও শেষ করতে পারেননি মরিনহো। শেষ করতে পারেননি চেলসির হয়ে দ্বিতীয় মেয়াদটিও।
ট্রফি বিহীন একটি মৌসুম কাটানোর পর এবার দলকে পছন্দমতো সাজাতে ব্যর্থ হয়ে মরিনহো সরাসরি বিবাদে জড়িয়ে পড়েছেন ক্লাবের পরিচালনা পর্ষদের সঙ্গে। বিশেষ করে মধ্যমাঠের শক্তি বাড়ানোর পক্ষে ছিলেন তিনি।
গতকাল পরাজয়ের মধ্য দিয়ে মরিনহোর সেই আশংকায় সত্যি হয়ে দেখা দিয়েছে। আমেক্সে (আমেরিকান এক্সপ্রেস কম্যুনিটি স্টেডিয়াম) অনুষ্ঠিত ম্যাচের প্রথমার্ধেই তাদের হজম করতে হয়েছে তিনটি গোল। যার দুটি গোলের জন্য মরিনহোর ভাষায় সরাসরি দায়ী ছিলেন সেন্টার ব্যাক ভিক্টর লিন্ডেলফ ও এরিক বেইলি। অবশ্য ওই হারের জন্য দলের রক্ষনাত্মক প্রদর্শনীকেও কম দায়ী করা যায়না।
ক্লাবের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ইডি উডওয়ার্ড বলেছেন মরিনহো ক্লাবের দায়িত্ব গ্রহনের পরই ৬০ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় করে বেইলি ও লিন্ডেলফকে দলভুক্ত করা হয়েছিল। যে কারণে নতুন করে ওই পজিশনের জন্য অর্থ ব্যয় করার কোন মানে হতে পারেনা।
ম্যাচের ২৫তম মিনিটে গ্লেন মারের গোলে পিছিয়ে পড়ে ইউনাইটেড। সলোমন মার্চের যোগান থেকে বল পেয়ে গোল করেন তিনি (১-০)। দুই মিনিট পর ফের গোল হজম করতে হয় গত আসরের রানার্স আপ দলটিকে। ২৭তম মিনিটে এ্যান্টনি নকার্টের যোগান থেকে বল নিয়ে গোল করে স্বাগতিক ব্রাইটনকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন শান ডাফি। ম্যাচের ৩৪তম মিনিটে অবশ্য রোমলেু লাকাকুর গোলে ব্যবধান কমিয়ে আনে ইউনাইটেড (২-১)। তবে বিরতিতে যাওয়ার আগের মিনিটে পেনাল্টি থেকে পাসকাল গ্রস গোল করলে ফের পিছিয়ে পড়ে ইউনাইটেড (৩-১)।
দ্বিতীয়ার্ধে আপ্রান চেস্টা চালিয়েও প্রতিপক্ষের জালে বল জড়াতে পারেনি হোসে মরিনহোর শিষ্যরা। শেষ পর্যন্ত ইনজুরি টাইমে (৯০+৫ মি.) পেনাল্টি থেকে পল পগবার গোলে ফের ব্যবধান কমাতে পারলেও হার এড়াতে পারেনি রেড ডেভিলসরা। ফলে ৩-২ ব্যবধানের পরাজয় নিয়ে ফিরতে হয় ম্যানচেস্টার ইইনাইটেডকে।
এদিকে ইউনাইটেড ব্যর্থ হলেও উড়ে চলেছে তাদের নগর প্রতিদ্বন্দ্বি ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি। সার্জিও এগুইরোর হ্যাট্রিকে ভর করে নিজেদের মাঠ ইত্তেহাদ স্টেডিয়ামে তারা নিজেদের ২য় লীগ ম্যাচে ৬-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে হাডার্সফিল্ডকে। ম্যাচের ২৫, ৩৫ ও ৭৫ মিনিটে গোল করে হ্যাট্রিক পুর্ন করেন এই আর্জেন্টাইন তারকা। পেপ গার্দিওলার দলের হয়ে আরো দুটি গোল করেছেন গাব্রিয়েল জেসুস ও ডেভিড সিলভা। জেসুস ৩১তম মিনিটে এবং সিলভা ৪৮তম মিনিটে গোল দুটি করেন। সিটিজেনদের পাশে বাকী গোলটি যুক্ত হয়েছে আত্মঘাতির খাত থেকে। ম্যাচের ৮৪তম মিনিটে কংগোলো এই গোলটি করেন। হাডার্সফিল্ডের হয়ে একমাত্র গোলটি পরিশোধ করেছেন স্তানকোভিচ। ৪৩তম মিনিটে গোলটি করেছেন তিনি।
দিনের আরেক ম্যাচে ওয়াটফোর্ড ৩-১ গোলে হারিয়েছে বার্নলিকে। বিজয়ী দলের হয়ে গ্রে তৃতীয় মিনিটে, ডিনিয়ে ৪৮তম মিনিটে এবং হিউজেস ৫১তম মিনিটে গোল করেন। বার্নলির হয়ে ষষ্ঠ মিনিটে একমাত্র গোলটি পরিশোধ করেছেন তারকোয়াস্কি।