বাংলাদেশকে ৭৪০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দেবে বিশ্বব্যাংক

47
image_printPrint

ঢাকা, ১১ এপ্রিল ২০১৮ (বাসস) : মৎস্য অধিদফতরের আওতায় ‘কোস্টাল ফিসারিজ’ ভিত্তিক একটি প্রকল্পে ২৪০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং প্রাণিসম্পদ খাতে ‘ডিআরএমপি’ প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশকে ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দেবে বিশ্বব্যাংক।
বিশ্বব্যাংক, ডিএফআইডি এবং সিআইএটি-এর যৌথ উদ্যোগে আজ বুধবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শুরু হওয়া দু’দিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ ক্লাইমেট স্মার্ট এগ্রিকালচার (সিএসএ) কান্ট্রি প্রোফাইল এ্যান্ড কিক-অফ বাংলাদেশ স্মার্ট ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান (সিএসআইপি)’-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একথা বলা হয়।
প্রধান অতিথি হিসাবে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব রইছউল আলম মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মাহমুদা বেগম, বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর (বাংলাদেশ, ভুটান ও নেপাল) কিমিও ফ্যান বিশ্বব্যাংকেরর‘এগ্রিকালচার গ্লোবাল প্র্যাকটিস’-এর পরিচালক মার্টিন ভ্যান নিউকোপ।
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী বলেন, বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি কমাতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতসহ দেশের সর্বস্তরে পরিবেশবান্ধব উন্নয়ন-প্রকল্পে বাংলাদেশ সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।
নারায়ন চন্দ্র চন্দ দেশের উন্নয়নে বিশ্বব্যাংকের পরিবেশবান্ধব বিনিয়োগকে স্বাগত জানিয়ে সর্বাত্মক সয়তার আশ্বাস দেন।
অনুষ্ঠানে দ’ুটি উপস্থাপনা পেশ করেন যথাক্রমে ‘সিএসআইপি’-এর প্রতিনিধি গুডফ্রয় গ্রসজেনএবং বিশ্বব্যাংক-এর প্রতিনিধি টোবিয়াস বেডকার।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বৈশ্বিক জলবায়ু ঝুঁকিসূচক অনুযায়ি বিশ্বের শীর্ষ ১০টি জলবায়ু-ঝুকিপূর্ণ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ একটি বলে উল্লেখ করে বলেন, স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা ও প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে জলবায়ুর পরিবর্তনরোধ এবং পরিবর্তনের মধ্যেও ব্যাপক উন্নয়ন-পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে।