বাসস দেশ-৩৬ : চট্টগ্রামে পেঁয়াজের মূল্য অস্বাভাবিক বৃদ্ধির দায়ে ১০ আড়তদারকে জরিমানা

68

বাসস দেশ-৩৬
ভ্রাম্যমান-জরিমানা
চট্টগ্রামে পেঁয়াজের মূল্য অস্বাভাবিক বৃদ্ধির দায়ে ১০ আড়তদারকে জরিমানা
চট্টগ্রাম, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ (বাসস) : চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধির দায়ে ১০ আড়তারকে জরিমানা করেছে জেলা প্রশাসন পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালত।
পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি ঠেকাতে ও বাজার স্থিতিশীল রাখতে খাতুনগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালত এ অভিযান চালায়।
রোববার দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিরিন আক্তার ও উমর ফারুকের নেতৃত্বে খাতুনগঞ্জে এ অভিযান চালানো হয়।
ক্রয় ইনভয়েস না রেখে নিজেদের মতো মূল্য বৃদ্ধি করায় মেসার্স বরকত ভান্ডারকে ১০ হাজার টাকা, মেসার্স গোপাল বানিজ্য ভান্ডারকে ১০ হাজার টাকা, মেসার্স হাজী মহিউদ্দিন সওদাগরকে ১০ হাজার টাকা, মেসার্স সেকান্দার এন্ড সন্সকে ১০ হাজার টাকা, মোহাম্মাদীয়া বানিজ্যালয়কে ১০ হাজার টাকা, মোহাম্মদ জালাল উদ্দীনকে ১০ হাজার টাকা, গ্রামীণ বাণিজ্যালয়কে ৫ হাজার টাকা, আরাফাত ট্রেডার্সকে ৫ হাজার টাকা, মেসার্স বাগদারিক কর্পোরেশনকে ৫ হাজার টাকা ও শাহাদাত ট্রেডার্সকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক বাসসকে বলেন, গত কয়েকদিন ধরে দেখা যায় প্রতি কেজি পেঁয়াজে ২০ টাকার মতো বৃদ্ধি পেয়েছে। খাতুনগঞ্জ বাজারে পেঁয়াজের আড়তে সরেজমিনে দেখা যায় আড়তদাররা ব্যাবসায়িক কাগজপত্র নিজেদের কাছে না রেখে আমদানিকারকের ফোন কলে দাম নির্ধারণ করে পেঁয়াজ বিক্রি করার ফলে অতিরিক্ত মুনাফা করতে কেজি প্রতি প্রায় ২০ টাকা লাভ করছে।
তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন আড়তে তাদের দামের ভিন্নতা পরিলক্ষিত হয়। প্রত্যেকেই এক বাক্যে বলে আমদানিকারকের নির্দেশনা অনুযায়ী তারা দাম নির্ধারণ করে এবং তারা কমিশনে ব্যবসা করে। যার ফলে দামের ব্যাপারে তাদের নিয়ন্ত্রন নেই।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিরিন আক্তার বাসসকে বলেন, হঠাৎ করে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির ফলে খুচরা বাজারে এর প্রভাব পড়ছে। যার ফলে দুইদিক থেকে পেঁয়াজের বাজার অস্থিতিশীল হচ্ছে। পাইকারি ও খুচরা বাজারে যাতে পেঁয়াজের দাম বেশি না নিতে পারে এজন্যে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করা হবে।
তিনি বলেন, দামের লাগাম টানতে আজকে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। ভবিষ্যতে যদি অসাধুরা পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির পাঁয়তারা করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়া হবে।
বাসস/জিই/কেএস/এফএইচ/২০৫৬/এবিএইচ