১০ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন ভবন নির্মাণ করা হয়েছে : নাহিদ

213

ঢাকা, ৩০ জুলাই ২০১৮ (বাসস) : শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের (ইইডি) মাধ্যমে ২০০৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১০ হাজার ১১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।
তিনি বলেন, ‘বর্তমানে দুই হাজার ১১৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। বিগত ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ১১ হাজার ৪৯৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূর্ণাঙ্গ ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে, যা ২০২০ সালের মধ্যে সমাপ্ত হবে।’
শিক্ষামন্ত্রী আজ সোমবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ইইডি’র ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের উন্নয়ন ও অনুন্নয়ন খাতের প্রকল্পের অগ্রগতি পর্যালোচনা, প্রধান কার্যালয় ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন এবং নবনিযুক্ত উপ-সহকারী প্রকৌশলীদের ওরিয়েন্টেশন কোর্সের উদ্বোধন ও মোটর সাইকেল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো নির্মাণ সার্বিক শিক্ষা উন্নয়নে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর (ইইডি) এই দায়িত্বপূর্ণ কাজ সম্পন্ন করছে।
তিনি বলেন, ‘ইইডির কাজ স্বচ্ছ ও দুর্নীতিমুক্ত করতে টেন্ডার বিকেন্দ্রীকরণ করা হয়েছে এবং অনলাইনে দরপত্র আহবান করা হচ্ছে। এ অধিদপ্তরের প্রকৌশলীরা আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন।’
ভবন নির্মাণে যথাযথ তদারকি ও সময়মত কাজ শেষ করার তাগিদ দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘পরিবেশ-বান্ধব চমৎকার ভবন নির্মান করতে হবে, যাতে শিক্ষার্থীরা সুন্দর ও আকর্ষনীয় পরিবেশ পায়।’
ইইডি’র প্রধান প্রকৌশলী দেওয়ান মোহাম্মদ হানজালার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন ও অতিরিক্ত সচিব মো. মহিউদ্দীন খান, কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সফিউদ্দিন আহমদ এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক মো. মাহাবুবুর রহমান।
শিক্ষামন্ত্রী নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত ১০২ জন উপ-সহকারী প্রকৌশলীর মধ্যে মোটরসাইকেলের চাবি হস্তান্তর করেন।
এরআগে শিক্ষামন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আগারগাঁওয়ে ইইডির নিজস্ব প্রধান কার্যালয় ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এ ভবন নির্মাণে ৩৮৪ কোটি টাকার প্রকল্প বরাদ্দ রয়েছে।
অনুষ্ঠানে তিনজন প্রকৌশলীকে ‘জাতীয় শুদ্ধাচার চর্চা-২০১৭’ পদক প্রদান করা হয়।

image_printPrint