বাসস প্রধানমন্ত্রী-১ (প্রথম কিস্তি-সংশোধনীসহ) : বিএনপি দেশে হত্যার রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতার পাশাপাশি ‘দুর্নীতির বিষবৃক্ষ রোপণ’ করেছে : প্রধানমন্ত্রী

90

বাসস প্রধানমন্ত্রী-১ (প্রথম কিস্তি-সংশোধনীসহ)
প্রধানমন্ত্রী-২১ আগস্ট-আলোচনা
বিএনপি দেশে হত্যার রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতার পাশাপাশি ‘দুর্নীতির বিষবৃক্ষ রোপণ’ করেছে : প্রধানমন্ত্রী
ঢাকা, ২১ আগস্ট, ২০২০ (বাসস) : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিগত বিএনপি সরকার হত্যার রাজনীতির পৃষ্ঠপোষকতার পাশাপাশি ‘দুর্নীতির বিষবৃক্ষ রোপণ’ করেছে যার ফল এখন বাংলাদেশ ভোগ করছে।
তিনি বলেন, ‘বিএনপির কাছে ক্ষমতা হলো দুর্নীতির মাধ্যমে টাকা কামানোর উপায় এবং দেশ এখন তাদের পাঁচ বছরের দুঃশাসন কালে রোপন করা বিষবৃক্ষের মূল্য দিচ্ছে।’
ভার্চুয়াল আলোচনায় সভাপতিত্বকালে প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, তাঁর সরকার বিএনপির একের পর এক দুর্নীতি উদঘাটন এবং এর সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করছে।
একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী, বিএনপি-জামায়াত জোট ২০০৪ সালে আওয়ামী লীগের একটি সমাবেশে বর্বর গ্রেনেড হামলা চালায় উল্লেখ করে বলেন, হত্যাকান্ড বিএনপির অভ্যাস।
তিনি বলেন, ‘(সত্যিকারেই) হত্যাকান্ড বিএনপি’র অভ্যাস, তারা দেশের স্বাধীনতা এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে না।’
২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীতে একটি সন্ত্রাস বিরোধী শান্তি সমাবেশে ভয়াবহ বোমা হামলার ১৬তম বার্ষিকী পালন উপলক্ষে আজ সকালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করে।
প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনায় অংশ নেন।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আলোচনা সভায় সূচনা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দলের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ।
দলের অন্যান্য কেন্দ্রীয় নেতারা দলীয় কার্যালয়ে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানের শুরুতে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা এবং ১৫ আগস্টের হত্যাযজ্ঞে শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
২১ আগস্টের হামলায় আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এবং মরহুম রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিনীসহ ২৪ জন প্রাণ হারিয়েছেন এবং ৫০০ বেশি লোক আহত হয়েছেন। আহতদের অনেকেই সারাজীবনের জন্য পঙ্গু হয়ে গেছেন।
সর্বশক্তিমান আল্লাহতায়ালার অশেষ রহমতে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগের প্রথম সারির অন্যান্য নেতারা কোনরকমে প্রাণে রক্ষা পান।
চলবে/বাসস/এসএইচ/অনু-এমএবি/২১১৫/আরজি