বাসস ক্রীড়া-১৩ : জামান-ইমামের রেকর্ডের দিন সহজ জয় পাকিস্তানের

বাসস ক্রীড়া-১৩
ক্রিকেট-পাকিস্তান-জিম্বাবুয়ে
জামান-ইমামের রেকর্ডের দিন সহজ জয় পাকিস্তানের
বুলাওয়ে, ২০ জুলাই, ২০১৮ (বাসস) : জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডেতে উদ্বোধণী জুটিতে দুই ওপেনার ফখর জামান ও ইমাম-উল-হকের বিশ্বরেকর্ডের দিন সহজ জয় পেল পাকিস্তান। উদ্বোধণী জুটিতে তাদের ৩০৪ রানের বিশ্বরেকর্ডের ম্যাচে বুলাওয়েতে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডেতে পাকিস্তান ২৪৪ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে জিম্বাবুয়েকে। রানের হিসেবে জয়ের ব্যবধানে এটি পাকিস্তানের দ্বিতীয় ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সবচেয়ে বড় জয়।
বুলাওয়েতে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেয় পাকিস্তান। উদ্বোধণী জুটিতে দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন দলের দুই ওপেনার ইমাম-উল-হক ও ফখর জামান। জিম্বাবুয়ে বোলারাদের বিপক্ষে নিজেদের সেরাটাই দিয়েছেন ইমাম-জামান। দু’জনের ব্যাটিং নৈপুন্যে ১০৬ বলে শতরান, ১৯০ বলে দু’শত এবং ২৫০ বলে ৩’শত রান পেয়ে যায় পাকিস্তান। এসময় ইমাম-জামান দু’জনই স্বাদ নেন সেঞ্চুরির। ইনিংসের ২৫২তম বলে স্কোর বোর্ডে ৩০৪ রান রেখে বিচ্ছিন্ন হন তারা। ফলে উদ্বোধণী জুটিতে সর্বোচ্চ রানের বিশ্বরেকর্ড গড়েন ইমাম-জামান। এর আগের রেকর্ডটি ছিলো শ্রীলংকার দুই ওপেনার উপুল থারাঙ্গা ও সনাথ জয়সুরিয়ার। ২০০৬ সালে লিডসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে থারাঙ্গা ও জয়সুরিয়া উদ্বোধণী জুটিতে ১৯১ বলে ২৮৬ রানের রেকর্ড গড়েছিলেন। ১২ বছর পর থারাঙ্গা-জয়সুরিয়ার রেকর্ড ভেঙ্গে নতুন বিশ্বরেকর্ডের জন্ম দিলেন ইমাম-জামান।
৮টি চারে ১২২ বলে ১১৩ রান করে ইমাম ফিরলেও ব্যাট হাতে অবিচল ছিলেন জামান। ওয়ানডেতে পাকিস্তানের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ডাবল-সেঞ্চুরির স্বাদ নেন তিনি। ফলে সাঈদ আনোয়ারের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৯৪ রানের রেকর্ড ভেঙ্গে যায়। শেষ পর্যন্ত ২৪টি চার ও ৫টি ছক্কায় ১৫৬ বলে ২১০ রানে অপরাজিত থাকেন জামান ।
ইমাম-জামানের বিশ্বরেকর্ড জুটিতে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ১ উইকেটে ৩৯৯ রান করে পাকিস্তান। এটি ওয়ানডেতে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। এর আগেরটি ছিলো ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ৩৮৫ রান। ২০১০ সালে দাম্বুলায় বাংলাদেশের বিপক্ষে ঐ স্কোর দাড় করিয়েছিলো পাকিস্তান।
জয়ের জন্য ৪০০ রানের বড় টার্গেটে শুরুটা ভালো হয়নি জিম্বাবুয়ের। ৬৭ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ হারের পথ তৈরি করে ফেলে তারা। ষষ্ঠ উইকেটে ৬৯ রানের জুটি গড়ে ধাক্কা কিছুটা সামাল দেন এলটন চিগাম্বুরা ও ডোনাল্ড ত্রিপানো। চিগাম্বুরা ৩৭ রানের বেশি করতে পারেননি।
শেষদিকে পাকিস্তানের লেগ-স্পিনার শাহদাব খানের ঘুর্ণিতে পড়ে জিম্বাবুয়ের আর কোন ব্যাটসম্যানই লড়াই করতে পারেনি। ফলে ৪২ দশমিক ৪ ওভারে ১৫৫ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন ত্রিপানো। পাকিস্তানের শাহদাব ২৮ রানে ৪ উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন পাকিস্তানের ওপেনার জামান।
আগামী ২২ জুলাই একই ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ ওয়ানডে।
বাসস/এএমটি/২০৩০/স্বব