ডেলে আলীর দুই গোলে চেলসির মাটিতে শেষ পর্যন্ত জয় পেল টটেনহ্যাম

40
image_printPrint

লন্ডন, ২ এপ্রিল ২০১৮ (বাসস) : ডেলে আলীর দ্বিতীয়ার্ধের জোড়া গোলে ২৮ বছর পরে চেলসির মাটিতে জয় তুলে নিয়েছে টটেনহ্যাম হটস্পার। রোববার স্ট্যামফোর্ড ব্রীজে প্রিমিয়ার লীগের ম্যাচে চেলসিকে ৩-১ গোলে পরাজিত করে দারুন এক জয় নিশ্চিত করেছে স্পারসরা।
এই পরাজয়ে আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লীগে খেলার আশা শেষ হয়ে গেছে ব্লুজদের। তাদের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী টটেনহ্যাম আট পয়েন্ট এগিয়ে চতুর্থ স্থান ধরে রাখায় চেলসির সামনে কার্যত আর কোন আশা নেই। লন্ডন ডার্বিতে দীর্ঘ প্রতিক্ষিত এই জয়ে আরেকবার কোচ মরিসিও পোচেত্তিনোর অধীনে স্পারসদের উন্নতি চোখে পড়লো। এই নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মত চ্যাম্পিয়নস লীগে খেলার নিশ্চিত হলো টটেনহ্যামের।
টটেনহ্যাম অধিনায়ক হুগো লোরিসের বিশাল ভুলে আলভারো মোরাতা ৩০ মিনিটে গোল করে চেলসিকে এগিয়ে দিয়েছিল। কিন্তু প্রথমার্ধের স্টপেজ টাইমে ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন দারুনঝ এক স্ট্রাইকে সমতা ফেরান। এরপরের গল্পটা পুরোটাই ছিল আলীকে ঘিড়ে। ৬২ ও ৬৬ মিনিটে পরপর দুই গোল করে এই ইংলিশ মিডফিল্ডার আবারো নিজের জাত চিনিয়েছেন। যদিও কাল স্পারসের হয়ে মূল একাদশে ছিলেননা দলের তারকা ফরোয়ার্ড হ্যারি কেন। গোঁড়ালির লিগামেন্ট ইনজুরি কাটিয়ে তিন সপ্তাহ পরে তিনি মাত্র ১৬ মিনিটের জন্য মাঠে নেমেছিলেন। যে কারনে আলীকে একটু উপরে উঠে খেলতে হয়েছে।
টটেনহ্যামের থেকে অবশ্য চেলসির জন্য জয়টা বেশী গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ম্যাচের শুরুতে স্বাগতিকরা সেই গতিও ধরে রেখেছিল। উইলিয়ান ও ভিক্টর মোসেসের শট সহজেই আটকে দেন লোরিস। মার্কোস আলোনসোর গোল অফ-সাইডের কারনে বাতিল হয়ে যায়। তবে ফ্রেঞ্চ এক নম্বর গোলরক্ষক ৩০ মিনিটে যে ভুল করেছে তা ক্ষমার অযোগ্য। মোসেসের ক্রস থেকে লোরিসের ভুলে অনেকটা ফাঁকা পোস্টে গোল করতে কোন ভুল করেননি মোরাতা। বক্সিং ডে থেকে প্রিমিয়ার লীগে কোন গোল পাননি মোরাতা। এবারের মৌসুমে অবশ্য তার বেশীরভাগ গোলই এসেছে হেড থেকে। এই গোলের পরে আলোনসোর ক্রস থেকে চেলসির একটি প্রচেষ্টা লোরিসের পরিবর্তে ইয়ান ভেরটোনগেনের দারুনভাবে ক্লিয়ার করেন। প্রথমার্ধের স্টপেজ টাইমে এরিকসেনের শট অবশ্য আটকাতে পারেননি ইনজুরি আক্রান্ত থিবাট কোরটোয়িসের স্থানে মূল একদশে খেলতে নামা উইলি কাবালেরো।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে সন হেয়াং-মিনের একটি দুর পাল্লার শট আবারো দারুনভাবে রুখে দেন আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক। কিন্তু ততক্ষনে ম্যাচের নিয়ন্ত্রন নিজেদের করে নিয়েছে স্পারসরা। তারই ধারাবাহিকতায় দুই মিনিট পরে এরিক ডায়ারের লম্বা পাস থেকে আলী দুর্দান্তভাবে বলের নিয়ন্ত্রন নিয়ে কাবালেরোকে পরাস্ত করলে এগিয়ে যায় টটেনহ্যাম। চলতি বছর আগের ১৯টি ম্যাচে এই নিয়ে আলী দুটি গোল করলেন। কিন্তু চার মিনিট পরে নিজের দ্বিতীয় গোল করে দলকে যে জয় উপহার দিয়েছেন তার জন্য অনেকদিন তিনি স্পারস সমর্থকদের হৃদয়ে থাকবেন।
আলীর দুই গোলের পরপরই চেলসির পরাজয় নিশ্চিত হবার সাথে ম্যানেজার এন্টোনিও কন্টেরও দিন শেষের ঘন্টা বেজে গেছে। যে কারনে আলীর দ্বিতীয় গোলের পরে কন্টেকে ডাগ আউটে বেশ ক্ষিপ্ত অবস্থায় দেখা গেছে।