যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি পাঁচ জনে প্রায় এক শিশু ক্ষুধার্ত

186

ওয়াশিংটন, ৭ মে, ২০২০ (বাসস ডেস্ক) : করোনাভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি পাঁচজনে প্রায় একজন শিশু পর্যাপ্ত খাবার পাচ্ছে না।
স্বাস্থ্যের ওপর করোনার ব্যাপক প্রভাবকে তুলে ধরে বুধবার এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।
দ্য ব্রুকিংস ইনস্টিটিউশনের রিপোর্টে বলা হয়, এক জরিপে দেখা গেছে ১২ কিংবা তার কম বসয়ী শিশু রয়েছে এমন ১৭.৪ শতাংশ মা বলছেন, টাকার অভাবে তারা সন্তানদের পর্যাপ্ত খাবার দিতে পারছেন না।
প্রধান গবেষক লরেন বাউয়ের বলছেন, এটি স্পষ্ট যে বড়ো শিশুরা যে পরিমাণে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে তা আধুনিক এ সময়ে নজিরবিহীন।
তিনি বলেন, ২০১৮ সালের তুলনায় ১৮ বছরের কম বয়সী শিশুদের মাঝে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা প্রায় ১৩০ শতাংশ বেড়েছে।
কোভিড ১৯ এর পরিণাম নিয়ে করা এই জরিপের ফলাফলে ২০০৮ সালের অর্থনৈতিক মন্দার সময়ের চেয়েও ভয়ংকর চিত্র উঠে এসেছে।
একে বিপদজনক উল্লেখ করে বাউয়ের নিউইয়র্ক টাইমসকে বলেন, পরিবারের অন্য সদস্যদের তাদের এক কিংবা দ’ুবেলার খাবার এবং শিশুরা পর্যাপ্ত খাবার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
তিনি সরকারের প্রতি খাদ্য নিরাপত্তা পরিস্থিতি জোরদারের আহ্বান জানিয়েছেন।
যুক্তরাষ্ট্রে করোনা মোকাবেলায় নেয়া পদক্ষেপের কারণে অন্তত তিন কোটি লোক কর্মহীন হয়ে পড়েছে। বেকারত্বের হার পৌঁছেছে ২০ শতাংশে,যা গত শতকের মহামন্দার পর সর্বোচ্চ।
এদিকে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ১২ লাখ লোক। মারা গেছে প্রায় ৭২ হাজার লোক।

image_printPrint