চসিকে দেশের প্রথম অটো স্যানিটাইজিং চেম্বার

507

চট্টগ্রাম, ২১ এপ্রিল, ২০২০ (বাসস) : চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নগরীর টাইগার পাসস্থ কার্যালয়ের সামনে অটো স্যানিটাইজিং চেম্বার বসানো হয়েছে। এই স্যানিটাইজিং চেম্বারের ভিতর দাঁড়ালে স্বয়ংক্রিয় স্প্রের মাধ্যমে মাত্র চার সেকেন্ডে নিজেকে জীবাণুমুক্ত করা যাবে।
চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র আবু আদনানের নেতৃত্বে ছয় শিক্ষার্থী এই অটো স্প্রে চেম্বারটি তৈরি করেছেন। ‘অটো ডিসইনফেকশান চেম্বার’ নামের এই স্বয়ংক্রিয় চেম্বারটি তৈরিতে ব্যয় হয়েছে মাত্র ২০ হাজার টাকা।
মঙ্গলবার বিকালে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এই অটো স্যানিটাইজিং চেম্বারটি উদ্বোধন করেছেন।
এ ব্যাপারে সিটি মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে নানা শ্রেণির লোকজন যাতায়াত করেন। এই ক্রান্তি কালে যেকোন ভাবেই করোনা ভাইরাস সংক্রমনের সম্ভাবনা রয়েছে। তাই কার্যালয়ের প্রবেশ মুখে এই স্যানিটাইজিং স্প্রে চেম্বার বসানো হয়েছে।
তিনি বলেন, আগত কর্মকর্তা-কর্মচারী বা জনসাধারণ এর ভিতর দিয়ে প্রবেশ করে চার সেকেন্ড অবস্থান করলে জীবাণুধ্বংসকারী রাসায়নিক মিশ্রণ স্বয়ংক্রিয় ভাবে স্প্রেয়িং হবে। এতে করে শরীরে থাকা করোনা ভাইরাস বা যেকোন ধরণের জীবাণু ধ্বংস হয়ে যাবে।
প্রস্তুুতকারক দলের প্রধান চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবু আদনান বলেন, বিদ্যুৎ সংযোগের মাধ্যমে অটো ডিসইনফেকশান চেম্বারটি সার্বক্ষণিক সক্রিয় রাখা হবে। একটি সেন্সরের মাধ্যমে এটি কাজ করবে। চেম্বারে প্রবেশের দুই সেকেন্ডের মধ্যে ক্লোরিন মিশ্রিত দ্রবণ স্প্রেয়িং শুরু হবে। তবে গায়ে পিপিই পড়া অবস্থায় চেম্বারে প্রবেশ করতে হবে। মিশ্রণের রাসায়নিক পদার্থ সরাসরি শরীরে পড়লে তাতে হাঁচি শুরু হতে পারে।
জানা গেছে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের এই সময়ে ভারত, ভিয়েতনাম, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশের অনেক স্থাপনার প্রবেশ মুখে অটো স্যানিটাইজিং স্প্রে সিস্টেম চালু হয়েছে। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীও প্রাতিষ্ঠানিক বিভিন্ন স্থাপনাতে ম্যানুয়েল স্যানিটাইজিং চেম্বার বসিয়েছে। তবে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে দেশের প্রথম অটো স্যানিটাইজিং চেম্বার বসানো হল।

image_printPrint