পিরোজপুরে আউশ চাষে ৪২ লাখ টাকা প্রণোদনা

376

পিরোজপুর, ১ মার্চ, ২০২০ (বাসস) : জেলায় আউশ ধান চাষে চাষীদের আগ্রহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রণোদনা সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। চলতি আউশ মৌসুমে সরকারের কৃষি মন্ত্রণালয় এ লক্ষ্যে পিরোজপুরের আউশ চাষীদের জন্য ৪২ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ করেছে।
জেলার ৭ উপজেলার ৫২টি ইউনিয়ন ও ৪টি পৌরসভার ৫ হাজার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক আউশ চাষী এ প্রণোদনা সহায়তা পাবে। উফশী চাষে প্রণোদনা সহায়তা প্রদান করা হবে ৫ হাজার চাষীকে ৫ হাজার বিঘা আউশের জমি চাষের জন্য। প্রত্যেক চাষীকে প্রতি বিঘার জন্য উফশী ধানের বীজ ৫ কেজি, ডিএপি সার ২০ কেজি এবং এমওপি সার ১০ কেজি। এজন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৪২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। পিরোজপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু হেনা মোহাম্মদ জাফর বাসসকে জানান, চাষীদের সার বীজ বিনামূল্যে প্রদানের পাশাপাশি সার্বক্ষণিক পরামর্শ প্রদান করা হবে। কৃষি বিভাগের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তারা বীজতলা তৈরী থেকে পাকা ধান কর্তন পর্যন্ত চাষীদের পরামর্শ প্রদানের কাজে নিয়োজিত থাকবেন। পিরোজপুর সদর উপজেলায় ৮শ’, ইন্দুরকানীতে ৬শ’, কাউখালীতে ৭শ’, নেছারাবাদে ৮৫০, নাজিরপুরে ৫শ’, ভান্ডারিয়ায় ৬৫০ এবং মঠবাড়িয়ায় ৯শ’ চাষীকে এ প্রণোদনা সহায়তা দেয়া হবে। পিরোজপুর সদর উপজেলার টোনা গ্রামের আউশ চাষী কালাচান শীল জানান, মূলত উৎপাদন খরচ বেশী হওয়ায় অন্যদিকে ধান চালের মূল্য কম থাকায় চাষীদের ধান চাষে উৎসাহ কমে যাচ্ছে। সরকারের এ প্রণোদনা সহায়তা চাষীদের চাষাবাদে উৎসাহিত করবে এবং চলতি আউশ মৌসুমে বড় ধরনের প্রাকৃতিক বিপর্যয় না ঘটলে চাল উৎপাদনে সরকারি লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করা সম্ভব হবে।

image_printPrint