বৃত্তি নিয়ে চীন যাচ্ছে আরো ৮৫০ কারিগরি শিক্ষক-শিক্ষার্থী

335

ঢাকা, ১০ জুলাই, ২০১৮ (বাসস ) : শিগগিরই আরো ৮৫০ জন কারিগরি শিক্ষক-শিক্ষার্থী স্কলারশিপ নিয়ে চীন যাচ্ছে। এদের মধ্যে ৮০০ জন শিক্ষার্থী ও ৫০ জন শিক্ষক। শিক্ষার্থীরা ৩ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং এবং শিক্ষকরা ব্যাচেলর, মাস্টার্স ও পিএইচডি ডিগ্রি গ্রহণ করবেন।
গতবছর থেকে চীনের এ স্কলারশিপ চালু হয়েছে। তখন বাংলাদেশের ৩০৮ জন শিক্ষার্থী স্কলারশিপ নিয়ে চীনের ১০টি প্রতিষ্ঠানে পড়তে যায়।
চীন সরকারের প্রতিনিধিসহ চীনের ১৭টি কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪৪ প্রতিনিধি বর্তমানে বাংলাদেশে অবস্থান করে স্কলারশিপের জন্য আগ্রহী শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বাছাই কার্যক্রমে অংশ নিচ্ছেন।
সোমবার রাতে স্থানীয় এক হোটেলে বাংলাদেশে অবস্থানরত চীনা প্রতিনিধিগণের সম্মানে আয়োজিত এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা সচিব সোহরাব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা সচিব মো. আলমগীর, চীনের রাষ্ট্রদূত মি. ঝাং জউ, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অশোক কুমার বিশ্বাস, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. মোস্তাফিজুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন চীন বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ। সুদীর্ঘকাল ধরে বাংলাদেশের সড়ক, সেতুসহ বিভিন্ন অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি তারা শিক্ষাক্ষেত্রেও অবদান রেখে চলেছে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্কলারশিপ কার্যক্রম সরকারের সহ¯্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখবে।
তিনি চীনের সহযোগিতার এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করেন।
এবারের বাছাইপর্বে দেশের ১১৭টি সরকারি-বেসরকারি কারিগরি প্রতিষ্ঠানের ৯০০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছে। সেখান থেকে ৮০০ জন বাছাই করা হয়েছে। এসব শিক্ষার্থীরা চীনে তিন বছরের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স শেষ করে সেখানেই উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন বা চাকরি করার সুযোগ পাবে।

image_printPrint