জয়পুরহাটে ৩ হাজার ৮১৫ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরি

255

জয়পুরহাট, ৭ জুলাই, ২০১৮ (বাসস) : খাদ্যে উৎপাদনে উদ্বৃত্ত জেলা জয়পুরহাটে চলতি ২০১৮-১৯ মৌসুমে রোপা আমন চাষ সফল করতে ৩ হাজার ৮১৫ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরি করা হয়েছে। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৪০ হেক্টর বেশি। জেলায় এবার প্রায় ৭২ হাজার ১২০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধাণর করা হয়েছে। আগাম বৃষ্টিপাতের ফলে জেলার কৃষকরা এখন চারা রোপণের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্র বাসস’কে জানায়, জেলায় রোপা আমন চাষের জন্য ৩ হাজার ৫৭৫ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরির লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও অর্জিত হয়েছে ৩ হাজার ৮১৫ হেক্টর। এরমধ্যে রয়েছে হাইব্রিড জাতের ৬৫ হেক্টর, উফসী জাতের ৩ হাজার ৭০৫ হেক্টর ও স্থানিয় জাতের ৪৫ হেক্টর বীজতলা। জেলায় চলতি ২০১৮-২০১৯ রোপা আমন চাষ মৌসুমে ৭২ হাজার একশ ২০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে উচ্চ ফলনশীল জাতের ৬৬ হাজার ৯২০ হেক্টর, হাইব্রিড জাতের ৪ হাজার ১৭৯ হেক্টর ও স্থানিয় জাতের এক হাজার ২১ হেক্টর। এতে চালের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে প্রায় ২ লাখ ৫ হাজার মেট্রিক টন ।
কৃষি বিভাগ জানায়, জেলায় ৩০ জুন পর্যন্ত ইউরিয়া ৩ হাজার ৬২৫ মে: টন, টি এস পি ১ হাজার ১১ মে: টন, এম ও পি ১ হাজার ৫০৫ মে: টন এবং ডি এ পি ৮শ’ ৭০ মে: টন সার মজুদ রয়েছে। অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার আগাম বৃষ্টিপাতের ফলে জেলার কৃষকদের রোপা আমন চাষে কোন সমস্যা হবেনা বলে আশা প্রকাশ করেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক সুধেন্দ্র নাথ রায়। জুন মাসে ১১৭ দশমিক ৩ মিলিমিটার গড় বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। জেলার কৃষকরা এখন রোপা আমনের বীজতলা পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন এবং কিছু এলাকায় চারা রোপনের কাজ শুরু হয়েছে বলে জানায় কৃষি বিভাগ।

image_printPrint