সারাদেশে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ

178

ঢাকা, ১ জানুয়ারি, ২০২০ (বাসস) : বই উৎসবের মধ্যে দিয়ে আজ বুধবার সারাদেশে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ করা হয়েছে।
বাসস-এর ঝিনাইদহ সংবাদদাতা জানান, আজ সকালে ঝিনাইদহ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ।
শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, এ বছর জেলার ছয়উপজেলায় চারলাখ ৫৬ হাজার ৬৬ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে ৩৮ লাখ ৮৫ হাজার চারশ’ ৩৪ টি বই বিতরণ করা হবে সারাদেশের ন্যায় বরগুনায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হয়েছে।
বাসস-এর বরগুনা সংবাদদাতা জানান, আজ সকাল ১০টায় বরগুনার সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে আয়োজিত বই উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন বরগুনার জেলা প্রশাসক মোস্তাই বিল্লাহ।
জেলা শিক্ষা অফিসার মো. শাহাদাত হোসেন জানান, এবছর বরগুনায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ে মোট ১২ লাখ ৭১ হাজার ৯৪০টি বই বিতরণ করা হয়েছে।এর মধ্যে প্রাথমিক পর্যায়ে একলাখ ২৯ হাজার এবং মাধ্যমিক পর্যায়ে ১১লাখ ৪২ হাজার ৯৪০টি বই শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে।
বাসস-এর টাঙ্গাইল সংবাদদাতা জানান, বুধবার সকালে শহরের জেলা সদর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আয়োজিত বই বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান আনসারী, জেলা সিনিয়র তথ্য অফিসার কাজী গোলাম আহাদ, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদ প্রমুখ।
এ বছর টাঙ্গাইল জেলায় চারলাখ ৪৫ হাজার ১৪০ জন প্রাথমিক শিক্ষার্থীর মধ্যে ২১ লাখ ১৮ হাজার ৬৯৯টি বই এবং প্রাক-প্রাথমিক ৭২ হাজার ৯৫৮ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৭২ হাজার ৯৫৮টি বই বিতরণ করা হয়। এছাড়া চারলাখ ৪৮ হাজার ৮২১ জন মাধ্যমিক শিক্ষার্থীর মাঝে ৬০ লাখ ২৪ হাজার ৩০৯টি বই বিতরণ করা হয়।
বাসস-এর নোয়াখালী সংবাদদাতা জানান, বই উৎসব উপলক্ষে আজ সকালে নোয়াখালী জিলা স্কুল ও সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস ছাত্রছাত্রীদের হাতে বই তুলে দেন। এবছর জেলার নয়টি উপজেলার একহাজার ২৫৩টি সরকারী বিদ্যালয়ে ১৯ লাখ ১০ হাজার সাতশ’ ১১টি নতুন বই শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেয়া হবে।
বাসস-এর লক্ষ্মীপুর সংবাদদাতা জানান, বুধবার সকালে এন. আহমদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শাহজাহান কামাল। এসময় জেলা প্রশাসক অঞ্জন চন্দ্র পাল, পুলিশ সুপার ড. এএইচএম কামরুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সরিৎ কুমার চাকমা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও, আদর্শ সামাদ সরকারি উচ্চবিদ্যালয়, কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং বালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বই উৎসব পালিত হয়।
এ বছর জেলায় প্রায় পাঁচলাখ ছাত্রছাত্রীর মাঝে নতুন বই বিতরণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে জেলার পাঁচটি উপজেলায় ৭৩২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দুইলাখ তিনহাজার ৯৫০ জন, বেসরকারি ও রেজিস্টার্ডসহ অপর ৩৪৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রায় ৩৩ হাজার ১৯০ জন এবং তিনশ’টি সরকারি-বেসরকারি মাধ্যমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রায় দুইলাখ ৭০ হাজার ছাত্রছাত্রী নতুন বই পাচ্ছে।
বাসস-এর ফেনী সংবাদদাতা জানান, বুধবার সকাল ১০ টায় ফেনী সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ফেনী-২ সংসদ সদস্য নিজামউদ্দিন হাজারী শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিয়ে বই উৎসবের সূচনা করেন। এসময় জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজজামান, জেলা শিক্ষা অফিসার কাজী সলিম উল্লাহ্,বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিক হোসনে আরা বেগম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।এরপর নিজামউদ্দিন হাজারী এমপিসহ অতিথিরা ফেনী সরকারি পাইলট প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এবং ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেন।
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এ বছর ফেনীর ছয়টি উপজেলায় প্রাথমিক, ইবতেদায়ি, মাধ্যমিক, দাখিল ও কারিগরি বিদ্যালয়ের চারলাখ চারহাজার ৬শ’ ২৩ জন শিক্ষার্থীর মাঝে ৩৩ লাখ ২৬ হাজার ৬শ ৫১টি পাঠ্যবই বিনামূল্যে বিতরণ করা হচ্ছে। প্রাথমিক স্তরে ফেনী সদরে দুইলাখ ৫২ হাজার ৬শ’ ৩১টি, ফুলগাজীতে ৫২ হাজার ৪শ’ ৭০টি, পরশুরামে ৪৪ হাজার ৭শ’টি, ছাগলনাইয়ায় ৭৩ হাজার ৬৩টি, দাগনভূঞায় একলাখ ৫৫ হাজার একশ’টি ও সোনাগাজীতে একলাখ ৩২ হাজার ৬০ টি বই বিতরণ করা হচ্ছে।
অন্যদিকে, মাধ্যমিক স্তরে ফেনী সদরে নয়লাখ ৩৮ হাজার ৬শ’ দুইটি, ফুলগাজীতে একলাখ ৫৮ হাজার ৮শ’ ৭৫টি, পরশুরামে দুইলাখ তিনহাজার ৮৩০টি, ছাগলনাইয়ায় তিনলাখ ৩৮ হাজার ৮শ’ ৭০টি, দাগনভূঞায় পাঁচলাখ ১৬ হাজার ৫শ’ ৮০টি এবং সোনাগাজীতে চারলাখ ৬১ হাজার বই বিতরণ করা হচ্ছে।
বাসস-এর ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা জানান, বছরের প্রথমদিনে প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রায় নয়লাখ শিক্ষার্থী নতুন বই পেয়েছে। সকালে নিয়াজ মুহম্মদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী। জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শফিউদ্দিন ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
জেলা প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, জেলার দুইহাজার ৩১২টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ৩২৯টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ২৫ লাখ ২৬ হাজার ৪৮৭টি এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ৪৩ লাখ ৭৩ হাজার ৯৮৪টি বই দেয়া হয়েছে।
বাসস-এর লালমনিরহাট সংবাদদাতা জানান, জেলার ৫টি উপজেলার একহাজার ৬২৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, প্রায় তিনলাখ পাচঁ হাজার ২৩৯ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩৩ লাখ ৭৫ হাজার ৯২১ টি বই বিতরণ করা হয়েছে।
বাসস-এর নীলফামারী সংবাদদাতা জানান, বুধবার সকাল ১১টার দিকে বই বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী। জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, এবছর জেলায় তিন হাজার ৩১২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৭লাখ ৩২ হাজার ৯৪১ জন শিক্ষার্থীর মাঝে ৫৪ লাখ ২৫ হাজার ৭১৪টি বই বিতরণ করা হয়েছে।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) তাজুল ইসলাম ম-ল জানান, জেলার ২ হাজার ৮৮২ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪ লাখ ৭২ হাজার ৬৮৮ শিক্ষার্থীর মাঝে ১৯ লাখ ৭১ হাজার ৩৯৯টি বই বিতরণ করা হয়েছে। জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান, জেলার ৪৩০টি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২ লাখ ৬০ হাজার ২৫৩ শিক্ষার্থীর মাঝে ৩৪ লাখ ৫৪ হাজার ৩১৫টি বই বিতরণ করা হয়েছে।
বাসস-এর হবিগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, বুধবার সকাল ১১টায় হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে জেলায় বই বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. আবু জাহির।
এ বছর হবিগঞ্জ জেলার ৯টি উপজেলায় ১ হাজার ৪০০টি প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৬ লাখ ৭৬ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে ৩৩ লাখ ৮৫ হাজার ৭৮টি নতুন বই বিতরণ করা হচ্ছে। এর মাঝে মাধ্যমিক পর্যায়ের ৩৪৮টি প্রতিষ্ঠানের ২ লাখ ৩৭ হাজার ৪৭২ জন শিক্ষার্থী পাচ্ছে ৩১ লাখ ৯৮ হাজার ৪১৪টি বই। অন্যদিকে প্রাথমিক পর্যায়ের ১ হাজার ৫২টি বিদ্যালয়ের ৪ লাখ ৩৯ হাজার ১৪৩ জন শিক্ষার্থী পাচ্ছে ১৮ লাখ ৬ হাজার ৬৬৪টি বই।

image_printPrint