নাইম-তাসকিন নৈপুণ্যে তৃতীয় জয় রংপুরের

238

ঢাকা, ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ (বাসস) : বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ নাইমের ৫৫ ও পেসার তাসকিন আহমেদের ৪ উইকেট শিকারে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টে তৃতীয় জয়ের দেখা পেল রংপুর রেঞ্জার্স। আসরের ২৮তম ম্যাচে রাজশাহী রয়্যালসকে ৪৭ রানে হারিয়েছে রংপুর রেঞ্জার্স। ৮ ম্যাচে ৩ জয় ও ৫ হারে ৬ পয়েন্ট রংপুরের। আর ৮ ম্যাচে ৫ জয় ও ৩ হারে ১০ পয়েন্ট রাজশাহীর। প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৮২ রান করে রংপুর রেঞ্জার্স। জবাবে ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৩৫ রান করে রাজশাহী।
মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্বান্ত নেন রাজশাহী রয়্যালসের ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক আান্দ্রে রাসেল। ব্যাট হাতে নেমেই মারমুখী হন রংপুরের ওপেনার নাইম। তার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৪ ওভারে ৩৮ রান পায় রংপুর। এরমধ্যে ৭ রান অবদান রেখে ফিরেন অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়াটসন।
এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার ক্যামেরন ডেলপোর্টকে নিয়ে ৪২ বলে ৫৪ রানের জুটি গড়েন নাইম। দ্রুত রান তুলতে ডেলপোটকে স্ট্রাইক দেন নাইম। তবে ৪০ বলে এবারের আসরে দ্বিতীয় হাফ-সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন নাইম। তার হাফ-সেঞ্চুরির পর ৩টি চার ও ২টি ছক্কায় ১৭ বলে ৩১ রানে আউট হন ডেলপোর্ট। ওয়াটসনকে ফেরানো আফিফ শিকার করেন ডেলপোর্টকে।
হাফ-সেঞ্চুরির পর থামতে হয় নাইমকেও। ৬টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪৭ বলে ৫৫ রান করেন নাইম। ১৩ দশমিক ২ ওভারে দলীয় ১১০ রানে নাইমের বিদায়ের রংপুরকে বড় সংগ্রহ এনে দেন ইংল্যান্ডের লুইস গ্রেগরি-আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবী, আল-আমিন ও উইকেটরক্ষক জহিরুল ইসলাম। গ্রেগোরি ১৭ বলে ২৮, নবী ১২ বলে ১৬, আল-আমিন ১০ বলে অপরাজিত ১৫ ও জহিরুল ৮ বলে ৪টি চারে অপরাজিত ১৯ রান করেন। রাজশাহীর পাকিস্তানের মোহাম্মদ ইরফান-আফিফ ২টি করে উইকেট নেন।
জয়ের জন্য ১৮৩ রানের লক্ষ্যে শুরুটা ভালো হয়নি রাজশাহীর। চতুর্থ ওভারের প্রথম বলে আউট হন আফিফ হোসেন। ৭ রান করে ফিরেন পেসার তাসকিন আহমেদের বলে ফিরেন তিনি। মিড-অফে ডান-দিকে ঝাপিয়ে পড়ে দুর্দান্ত ক্যাচ নেন গ্রেগরি। এরপর আরেক ওপেনার লিটন দাসকেও ১৫ রানে থামিয়ে দেন তাসকিন। পরের বলে পাকিস্তানের শোয়েব মালিককে বোল্ড করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা সৃস্টি করেন তাসকিন। কিন্তু সেটি আর হয়নি।
এরপর অলক কাপালির ৩১ ও ইংল্যান্ডের রবি বোপারার ১৯ বলে ২৮ রানে ১৪ ওভারে ৯১ রানে পৌছায় রাজশাহী। ফলে শেষ ৬ ওভারে ৯২ রান দরকার পড়ে রাজশাহীর। আস্কিং রেট ছিলো ১৫ দশমিক ৩৩।
এ অবস্থায় ২টি ছক্কা ও ১টি চারে রাজশাহীকে জয়ের স্বপ্ন দেখার সাহস দেন রাসেল। কিন্তু ৭ বলে ১৭ রান করে রান আউট হন রাসেল। আর সেখানেই রাজশাহীর জয়ের সকল আশা শেষ হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেটে ১৩৫ রান করে রাজশাহী। রংপুরের তাসকিন ৪ ওভারে ২৯ রানে ৪ উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
রংপুর রেঞ্জার্স : ১৮২/৬, ২০ ওভার (নাইম ৫৫, ডেলপোর্ট ৩১, ইরফান ২/৩৫)।
রাজশাহী রয়্যালস : ১৩৫/৮, ২০ ওভার (কাপালি ৩১, বোপারা ২৮, তাসকিন ৪/২৯)।
ফল : রংপুর রেঞ্জার্স ৪৭ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : লুইস গ্রেগরি(রংপুর রেঞ্জার্স)।

image_printPrint