যোগ্যতার ভিত্তিতে দলের নেতা নির্বাচিত হবে : ওবায়দুল কাদের

323

ঢাকা, ২৫ অক্টোবর, ২০১৯ (বাসস) : আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, যোগ্যতার ভিত্তিতে আওয়ামী লীগের নেতা নির্বাচিত হবে। দলের সহযোগী সংগঠনগুলোকে আরও শক্তিশালী এবং গতিশীল করতে নবীন-প্রবীণের সমন্বয়ে কমিটি করা হবে।
তিনি বলেন, নেতৃত্বের পরিবর্তন হলে দল শক্তিশালী হয়। এখন থেকে থানায়-থানায়, ওয়ার্ডে-ওয়ার্ডে কর্মীসভা করতে হবে। সরকারের বিরুদ্ধে অপ্রচারের জবাব দিতে হবে। যার ভোগের লিপসা আছে তার দলে দরকার নেই।
আজ শুক্রবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী সিটি করপোরেশন নির্বাচন এবং দলের সম্মেলনের জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। প্রতিপক্ষ আটঘাট বেঁধে নির্বাচনে নামবে। নিজেদের মধ্যে বিরোধ থাকলে প্রতিপক্ষের প্রার্থী বিজয়ী হতে পারে।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শাসনামলে অন্যায় করে কেউ পার পাবে না। প্রধানমন্ত্রীর শুদ্ধি অভিযানকে কার স্বার্থে আঘাত লেগেছে জানি না। তবে এই শুদ্ধি অভিযান দেশের জনগণ প্রশংসা করছে, সমর্থন জানিয়েছে। বিশ্বে শেখ হাসিনা প্রশংসিত হচ্ছেন।
দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে কাদের বলেন, ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়। আওয়ামী লীগ অনেক বড় দল। এখানে বিতর্কিত লোক এনে দল ভারী করার দরকার নেই। খারাপ লোক দিয়ে দল ভারী করলে অন্ধকার এলে বাতি জ্বালিয়ে তাদের পাওয়া যাবে না।
আওয়ামী লীগ লুটপাট সন্ত্রাসীদের পার্টি নয়। জনগণের ইচ্ছায় আমরা থাকবো অপকর্ম করে আমরা ক্ষমতায় থাকতে চাই না। মানুষের মন জয় করে ক্ষমতায় থাকতে চাই। সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, ভূমি দখলকারী, অপকর্মের সঙ্গে জড়িতদের আওয়ামী লীগে দরকার নেই। জনগণ এখন কিছু বলবে না হয়তো, কিন্তু নির্বাচনের সময় জবাব দেবে।
তিনি আরও বলেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বড় বড় কথা বলেন। বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিলো সন্ত্রাস, খুন, লুটপাট, মাদক এমন কোনো অপকর্ম ছিলো না যার সঙ্গে তারা যুক্ত ছিলো না। হাওয়া ভবনের নির্দেশে সবকিছু হয়েছে। একজন অপরাধীকেও তখন আইনের আওতায় আনা হয়নি। শেখ হাসিনার সাহস আছে, তিনি অপকর্মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছেন। দলের নেতা-কর্মীদেরও ছাড় দেননি।
ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে সভায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

image_printPrint