দু’বছরের মধ্যে সারাদেশে নির্মাণাধীন ১৩টি হাই-টেক পার্কের প্রতিটিতে একটি করে সিনেপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে : পলক

977

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ (বাসস) : তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, তরুণদের জন্য সুস্থ বিনোদনের লক্ষ্যে আগামী দু’বছরের মধ্যে নির্মাণাধীন ১৩টি হাই-টেক পার্কের প্রতিটিতে একটি করে সিনেপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে।
সুস্থ বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম চলচ্চিত্র এ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে নির্মাণাধীন এসব পার্কে আইসিটি বিভাগের উদ্যোগেই সিনেপ্লেক্স নির্মিত হবে।
জুনাইদ আহমেদ পলক আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর মধুমতি সিনেমা হলে এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক প্রয়াত সালমান শাহ’র ৪৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘সালমান শাহ জন্মোৎসব-২০১৯’ শীর্ষক ৭ দিনব্যাপী চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। ঢুলি কমিউনিকেশন এ চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে।
তিনি বলেন,‘সালমান শাহ একটি নাম নয়, আমাদের চলচ্চিত্র জগতের অনুপ্রেরণা। তরুণ প্রজন্মের আইকন। যিনি হঠাৎ করে এসেই বাংলা চলচ্চিত্রের দর্শকদের মন জয় করে খুব তাড়াতাড়িই ভক্তদের কাঁদিয়ে চলে গেলেন।’
আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে শিল্পী হিসেবে জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে সমর্থ হয়েছেন নায়ক সালমান শাহ। তার (সালমান শাহ) শূন্যতা পূরণ হয়নি, তিনি বেঁচে থাকলে বাংলা চলচ্চিত্র আরও সমৃদ্ধ হতো।
পলক বলেন, সালমান শাহ’র সৃজনশীলতা ও উৎকর্ষতাকে অনুপ্রেরণায় পরিণত করতে এবং প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে তার সিনেমা ছড়িয়ে দিতে এই জন্মোৎসবের আয়োজন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
অন্যান্যের মধ্যে চলচ্চিত্র অভিনেতা শাকিব খান, টি এম ফিল্মস ও গান বাংলা টেলিভিশনের ভাইস চেয়ারম্যান ফারজানা মুন্নি, বাচসাস সভাপতি ফাল্গুণী হামিদ ও উৎসবের আহ্বায়ক নিপু বড়ুয়া এ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন ।
সালমান শাহ’র জন্মোৎসব উপলক্ষে রাজধানীর মধুমিতা প্রেক্ষাগৃহে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে ধারাবাহিকভাবে প্রয়াত এ নায়কের জনপ্রিয় সাতটি চলচ্চিত্র প্রদর্শীত হবে। চলচ্চিত্রগুলো হচ্ছে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’, ‘তোমাকে চাই’, ‘মায়ের অধিকার’, ‘চাওয়া থেকে পাওয়া’, ‘স্বপ্নের পৃথিবী’, ‘অন্তরে অন্তরে’ ও ‘সত্যের মৃত্যু নেই।

image_printPrint